বঙ্গবন্ধুর আদর্শের আরেক ত্যাগি সৈনিক ‘ জগলুল কবির ‘

এ্যাডভোকেট জগলুল কবির এখন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের বর্তমান ঢাকা মহানগর দক্ষিনের আইন বিষয়ক সম্পাদক।রাজনীতিতে সক্রীয়ভাবে তার অংশগ্রহন শুরু হয় ১৯৯০ সালে।বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে পথ দেখিয়েছেন, যে আদর্শ রেখে গেছেন সেই পথ ধরেই এগিয়ে নিয়ে যেতে ফরিদপুর রাজেন্দ্র বিশ্ববদ্যালয় কলেজ শাখার যুগ্ম সাধারন সম্পাদক দিয়ে শুরু হয় তার রাজনীতির পথচলা। ঢাকা কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায়, ঢাকা সেন্ট্রাল ল’কলেজ থেকে শুরু হয় তার নতুন ভাবে পথচলা। ঢাকা সেন্ট্রাল ল’কলেজের আইন ছাত্র পরিষদের সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি হিসেবে সক্রীয়ভাবে রাজনীতিতে আসেন এবং পরবর্তীতে বাংলাদেশ আওয়ামী আইন ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হন (২০০৩-২০১৩)। তারপর তিনি ঢাকা আইনজীবি সমিতির সদস্য হিসেবে আইন পেশায় নিয়োজিত হন।  আইন পেশায় নিয়োজিত থাকা অবস্থায় তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ ঢাকা বার শাখার যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এবং বাংলাদেশ সূপ্রিমকোর্ট বার শাখার বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।পরবর্তীতে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় উপ কমিটির সহ-সম্পাদক ছিলেন।

২ মাস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়

অতঃপর তার সক্রীয় রাজনীতির কারনে (২০০৬-২০০৭) তৎকালীন সরকারের আমলে রাজনৈতিক মামলার স্বীকার হন। শুধু তাই নয় নির্যাতন সহ্য করতে হয় এবং জেলে যেতে হয়। নির্যাতনের ফলে তার ডান হাত ভেঙ্গে যায় এবং তাকে দীর্ঘ ২ মাস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় থাকতে হয়। পরবর্তীতে ২০০৭ ইং ১৬ জুলাই জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা গ্রেফতার হলে মরহুমা অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এর জুনিয়র হিসেবে, ব্যারিষ্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এমপির নেতৃত্বে পুনরায় জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে মুক্ত করার জন্য আইনী লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়েন এবং নেত্রী যেদিন গ্রেফতার হন সেদিন তিনি টেলিফোনের মাধ্যমে সকল আইনজীবিদের একত্রিত করার চেষ্টা চালান। বিচারিক আদালত শেরেবাংলা নগর ঢাকায় চলে গেলে দীর্ঘ ৯ মাস মরহুমা অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এর জুনিয়র হিসেবে ব্যারিষ্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এমপির নেতৃত্বে দীর্ঘ ৯ মাস জননেত্রীর মুক্তির প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত ছিলেন।

বর্তমান তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিনের আইন বিষয়ক সম্পাদক। এখন দেখার বিষয় তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিনের আইন বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে তিনি কি উপহার দিবেন।