দৌলতদিয়ায় পারাপারের অপেক্ষায় ৩ শতাধিক ট্রাক

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় নৌরুটে নদী পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় তিন শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন চালকরা।

বুধবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়াঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে দৌলতদিয়া-খুলনা মহাসড়কে দুই শতাধিক ও গোয়ালন্দ মোড় থেকে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে প্রায় এক শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক আটকা পড়ে।

ট্রাকচালকদের অভিযোগ, গোয়ালন্দ মোড় থেকে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে আটকে থাকা স্থানে নেই টয়লেট, গোসল, খাবারসহ অন্যান্য সুবিধা। তাদের দুর্ভোগের শেষ নেই।

ঘণ্টার পর ঘণ্টা তারা এভাবে নদী পারাপারের অপেক্ষায় সড়কে আটকে থাকেন। আর এ সমস্যা আজকের না, বহুদিনের। সমস্যা সমাধানে একমাত্র উপায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে একটি ব্রিজ। সড়কে আটকে থেকে তাদের গাড়ি। এ কারণে সময়মতো মালামাল পরিবহন করতে পারেন না; লোকসান গুনতে হয় তাদের।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়াঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক মাহবুব হোসেন জানান, মাওয়ায় বড় ফেরিগুলো বন্ধ রয়েছে। এ কারণে যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে দৌলতদিয়া প্রান্তে। এতে কিছু যানবাহনের সিরিয়াল তৈরি হয়। ঘাট প্রান্তে দেড় শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক ছাড়া অন্য কোনো যানবাহন সিরিয়ালে নেই। এ ছাড়া এই রুটে সপ্তাহে তিন দিন যানবাহনের চাপ একটু বেশিই থাকে।

তবে চাপ সামলাতে বর্তমানে এই নৌরুটে ১৮টি ফেরি চলাচল করছে। এ ছাড়া দৌলতদিয়া প্রান্তের ৩, ৪, ৫ নম্বর ঘাট পুরোপুরি সচল আছে। এ অবস্থায় যাত্রীবাহী ও অন্যান্য জরুরি যানবাহনকে অগ্রাধিকার দিয়ে নদী পার করা হচ্ছে।