ঢাকায় চাকরির পরীক্ষা দিতে এসে তরুণ খুন

চাকরির জন্য রাজধানীতে সাক্ষাৎকার দিতে এসে খুন হয়েছেন তুর্কি মুন্না ওরফে সংগ্রাম (২০) নামের এক তরুণ। বুধবার ভোর পাঁচটার দিকে মিরপুর এক নম্বর ঈদগাহ মাঠের কাছে দুর্বৃত্তরা উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে তাকে হত্যা করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শাহ আলী থানার ওসি আবুল বাশার মো. আসাদুজ্জামান যুগান্তরকে জানান, ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে কাজ করছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, শপিংমলে চাকরির জন্য নড়াইল থেকে ঢাকায় এসেছিলেন সংগ্রাম। বুধবার ভোরে তিনি গাবতলী নামেন। এরপর রিকশা করে মিরপুর যাচ্ছিলেন। ভোর পাঁচটার দিকে মিরপুর এক নম্বর ঈদগাহ মাঠের কাছে কয়েকজন দুর্বৃত্ত তার রিকশা আটকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সংগ্রামের লাশ উদ্ধার করে। তার শরীরে ছুরির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তবে তাকে কে বা কারা খুন করেছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ওসি আবুল বাশার মো. আসাদুজ্জামান জানান, সংগ্রাম উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেছেন। তার বাড়ি নড়াইলের সদর উপজেলায়। শপিংমলে চাকরির জন্য সকাল ১০টায় মিরপুর ১০ নম্বরে ও দুপুর ১২টায় পল্লবীতে চাকরির সাক্ষাৎকারের কথা ছিল তার। সেজন্যই সকালে গাবতলী বাসস্ট্যান্ডে নেমে মিরপুরে বন্ধু রহমতউল্লাহর কাছে যাচ্ছিলেন তিনি। পথিমধ্যে দৃর্বৃত্তরা তাকে উপর্যুপরি ছুরি মেরে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে মারা যান তিনি। পরে স্থানীয় বাসিন্দাদের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে।

বুধবার সন্ধ্যায় ওসি আরও জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় রহমতউল্লাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করতে কাজ চলছে। এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন।