বিদেশি চ্যানেলের অনৈতিক ব্যবসায় ক্ষতিগ্রস্ত কেবল অপারেটর

বিদেশি চ্যানেলের দেশীয় একটি পরিবেশক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অনৈতিক ব্যবসায়িক চর্চার অভিযোগ তুলেছে কেবল অপারেটররা। এতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ডিশ সেবাদাতারা। অপতৎপরতা বন্ধ না হলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের পরিবেশিত স্টার জলসা, স্টার প্লাস’সহ ৮টি চ্যানেল বন্ধের হুমকি দিয়েছে কেবল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-কোয়াব। চলমান জটিলতা নিরসনে সাতদিনের সময়সীমাও বেধে দিয়েছে সংগঠনের নেতারা।

কেবল অপারেটরদের তথ্যমতে, বর্তমানে দেশে প্রচারিত বিদেশি চ্যানেলগুলোর দেশীয় পরিবেশক হিসেবে রয়েছে ন্যাশনওয়াইড মিডিয়া লিমিটেড, জাদু ভিশন লিমিটেড, ওয়ান অ্যালায়েন্স লিমিটেড ও মিডিয়া কেয়ার লিমিটেড এই চার প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে সিগনাল ভাড়া নিয়ে গ্রাহকদের সেবা দিচ্ছেন কেবল অপারেটরা।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ভারতীয় মিডিয়া গ্রুপ স্টার এর স্টার জলসা, স্টার প্লাস, ন্যাশনাল জিওগ্রাফি’সহ ৮টি চ্যানেলের দেশীয় পরিবেশক প্রতিষ্ঠান-জাদু ভিশন লিমিটেডের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতা অভিযোগ করলেন, কোয়াবের নেতারা।

সংগঠনটির নেতাদের ভাষ্যমতে, জাদু ভিশনকে এসব অপতৎপরতা বন্ধ করতে হবে। এজন্য সাতদিনের সময়সীমা বেধে দেয়া হয়। অন্যাথায় ৪নভেম্বর থেকে জাদু ভিশন লিমিটেডের পরিবেশিত চ্যানেলগুলো বন্ধের হুমকি দেন কোয়াবের সভাপতি।

কোয়াবের সভাপতি আনোয়ার পারভেজ বলেন, ফিটু ইয়ার এবং পে চ্যানেলের মাধ্যমেই আমরা ব্যবসা পরিচালনা করছি। বিদেশি পে চ্যানেল কর্তৃক ক্যাবেল অপারেটরদের ওপর যে নিপীড়ন চলছে তার কিছু চিত্র তুলে ধরা হবে।

এসময় চলমান সমস্যা সমাধান করার পর কেবল অপারেটরদের কাছে জাদু ভিশন লিমিটেডের বকেয়া পাওনা পরিশোধ করা হবে বলেও জানান কোয়াবের নেতারা।সূত্রঃ সময় নিউজ