ফাঁড়ির সামনে কাফনের কাপড় মাথায় বেঁধে অনশনে রায়হানের মা

সিলেটে ছেলে হত্যাকারী পলাতক এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াসহ জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে বন্দরবাজার ফাঁড়ির সামনে কাফনের কাপড় মাথায় বেঁধে অনশনে বসেছেন নিহত রায়হানের মা সালমা বেগম। তার সঙ্গে যোগ দিয়েছেন আত্মীয়স্বজনসহ আরও অনেকে।

রোববার বেলা ১১টা থেকে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির সামনে এ আমরণ অনশনে বসেন তারা।

এ সময় নিহত রায়হানের মা সালমা বেগম যুগান্তরকে বলেন, আমার বুকের ধন একমাত্র ছেলেকে কেড়ে নিয়েছে এই ফাঁড়ির সাবেক ইনচার্জ এসআই আকবর ও তার সহযোগীরা। বর্বরোচিতভাবে নির্যাতন করে আমার ছেলেকে হত্যা করেছেন তারা। আমি এ হত্যাকারীদের বিচার চাই। আর না হয়, আমার ছেলেকে মেরেছে, আমাকেও গুলি করে মারা হোক।

তিনি বলেন, আমার ছেলের হত্যাকারী এসআই আকবরকে না ধরা পর্যন্ত আমি এখানেই অবস্থান করব। এ কর্মসূচি কোনো দলীয় কর্মসূচি নয়। তাই দলমত নির্বিশেষে সবাইকে অংশ নেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

সালমা বেগম বলেন, আমার ছেলেকে এ ফাঁড়িতে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার আজ ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও এসআই আকবরকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। এ ছাড়া পুলিশ হেফাজতে থাকা আকবরের সহযোগীদেরও গ্রেফতার দেখানো হচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, এসআই আকবর ও তার সহযোগীদের গ্রেফতার করে রিমান্ডে নিলে অনেক তথ্য বেরিয়ে আসবে বলেও দাবি রায়হানের মায়ের।

এ ব্যাপারে মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার ওসি সেলিম মিঞা যুগান্তরকে বলেন, মিটিংয়ে আছি। শুনছি রায়হানের মা কয়েকজন লোক নিয়ে ফাঁড়ির সামনে অনশনে বসেছেন।

প্রসঙ্গত, গত ১১ অক্টোবর সিলেটের বন্দরবাজার ফাঁড়িতে ধরে নিয়ে টাকার জন্য অমানবিক নির্যাতন করা হয় নগরীর নেহারিপাড়া এলাকার বাসিন্দা রায়হানকে (৩৩)। ভোরে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় রোববার রাতে সিলেট কোতোয়ালি থানায় অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন নিহত রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নি।