নোয়াখালীতে এবার দরজা ভেঙে কিশোরীকে ধর্ষণ

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌর এলাকায় বসতঘরের দরজা ভেঙে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে এক কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনায় অভিযুক্ত সুমনকে (৩২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রবিবার সকালে চৌমুহনী পৌরসভা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার সুমন করিমপুর খালপাড় এলাকার আলো বেপারি বাড়ির বাসিন্দা।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, পৌরসভা এলাকার ওই কিশোরী তার বাবা-মায়ের সঙ্গে নিজ বাড়িতে বসবাস করতো। গত শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে একই এলাকার বাসিন্দা সুমন ওই কিশোরীর বসতঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকে। এ সময় সুমন ঘুমন্ত ওই কিশোরীর কক্ষে গিয়ে তার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। কিশোরী জেগে গেলে সুমন অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। কিশোরীর চিৎকারে পাশের কক্ষে থাকা তার মা-বাবা ছুটে এলে সুমন দৌড়ে পালিয়ে যায়।

বেগমগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শনিবার রাতে সুমনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেছেন ওই কিশোরীর বাবা। মামলার পরপর সুমনকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চালানো হয়। রবিবার সকালে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।