করোনা ও লকডাউন নিয়ে জয়ার শর্ট ফিল্ম

অন্ধকারে মাস্ক পরে বড়ই বিষণ্ণ অবস্থায় বসে আছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। সামনে অচেনা এক ব্যক্তি। তবে কি এই অতিমারি করোনাভাইরাস নায়িকাকে বিষাদের দিকে নিয়ে যাচ্ছে? না, তেমন কোনো ব্যাপার নয়। এটি জয়া আহসান অভিনীত নতুন একটি শর্ট ফিল্মের দৃশ্য। তার সামনে যে লোকটি বসে আছেন, তিনি ওই ফিল্মেরই পরিচালক।

রবিবার রাতে ফেসবুকে কয়েকটি ছবিসহ একটি স্ট্যাটাস দিয়ে এই শর্ট ফিল্মের কথা জানিয়েছেন জয়া। তিনি লিখেছেন, ‘এই অতিমারি আর লকডাউন নিয়ে ১৫ দিনে একটি শর্ট ফিল্ম বানিয়ে ফেললাম। এই সময়ের মানসিক অস্থিরতার দিনগুলোতে যখন বাসায় বসে ভয় আর আশঙ্কায় দিন কাটাচ্ছিলাম, সে সময় পরিচালক ফোনে বললেন, ‘চলেন ছোট করে একটা শর্ট ফিল্ম বানিয়ে ফেলি।’

অতিমারির মধ্যে দিয়ে চলা বিশ্বের যেকোনো মানুষ এই শর্ট ফিল্মের সঙ্গে নিজেকে মেলাতে পারবেন বলে দাবি জয়ার। তিনি বলেন, ‘১৫ দিনের শুটিংটা একটা পাগলামি ছিল। এত কম মানুষ নিয়ে যে একটা ছবি শুট করা যায় সেটাও জানা হল।’ কবে মুক্তি পাবে এই শর্ট ফিল্ম? জয়া জানান, ‘দিন তো ঠিক হয়নি। তবে ছবি যাতে সবাই দেখতে পান, তার ব্যবস্থা করব আমরা।’

নাম প্রকাশ না করা জয়ার এই শর্ট ফিল্মের পরিচালক ‘হাসিনা: অ্যা ডটারস টেল’ খ্যাত নির্মাতা পিপলু আর খান। এই প্রথম শর্ট ফিল্ম বানালেন তিনি। নুসরাত মাটির সঙ্গে এর চিত্রনাট্যও তিনি লিখেছেন। যৌথভাবে ফিল্মটির প্রযোজনায় রয়েছে অভিনেত্রী জয়া আহসানের মালিকানাধীন সংস্থা সি তে সিনেমা, আবু শাহেদ ইমনের ‘বক্স অফিস মাল্টিমিডিয়া’এবং পরিচালক পিপলু আর খানের ‘অ্যাপল বক্স ফিল্মস’।

প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নিয়ে জানতে চাইলে পিপলু আর খান শুধু বলেন, ‘সময়মতো সবাই সবটা জানতে পারবেন। এই শর্ট ফিল্মটা যদি এই সময়ে বানানো না হতো, তাহলে আর কখনোই বানানো হতো না। ওই সময়ের অনুভব জীবন্ত থাকতে থাকতে ছবিটা বানিয়ে ফেলতে চেয়েছি। আমি আমার সিনেমার ব্যাপারে খুবই রক্ষণশীল। সিনেমাটাও খুবই ব্যক্তিগতভাবে তৈরি হয়েছে।’

কিন্তু জয়া আহসান হঠাৎ শর্ট ফিল্মে অভিনয় করলেন কেন? অভিনেত্রীর জবাব, ‘মাছ কি ডাঙায় বেশিক্ষণ বাঁচতে পারে? অভিনয়শিল্পীরাও তাই। অভিনয় ছাড়া বেশি দিন টিকে থাকতে পারে না। করোনার শুরুর দিনগুলোতে ঘরে থেকে ছোটখাটো নানা কাজের প্রস্তাব আসছিল। কিন্তু ওসবে আবার আমার পোষায় না। এখানে ব্যাটে-বলে মিলে গেল। তাই রাজি হয়ে গেলাম।’

অন্যদিকে, খুব শিগগির কলকাতার পরিচালক শিলাদিত্য মৌলিকের নতুন ছবি ‘ছেলেধরা’র কেন্দ্রীয় চরিত্রে দেখা যাবে জয়াকে। এই ছবিতে উঠে আসবে একজন অ্যালকোহলিক মা ও মেয়েকে অপহরণের গল্প। দেখা যাবে, অপহৃত হওয়ার পর নানা কৌশলে অপহরণকারীর ছেলেকেই নিজের নাগালে নিয়ে নেন ওই অ্যালকোহলিক মা। নিজের ছেলেই যখন অপহরণের শিকার, তখন অপহরণকারীর ঠিক কী অনুভূতি হয়- এই পটভূমিতেই তৈরি হচ্ছে ‘ছেলেধরা’।