নেপালে এবার বন্ধ সব ভারতীয় সংবাদ চ্যানেল

ভারত–নেপাল সম্পর্ক আরো অবনতির পথে। এবার প্রতিবেশি এই রাষ্ট্রে বন্ধ হলো ভারতীয় সব সংবাদচ্যানেলের সম্প্রচার। ওই দেশের এমএসওরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে বৃহস্পতিবার থেকে দূরদর্শন ছাড়া নেপালে দেখা যাচ্ছে না কোনো ভারতীয় সংবাদ চ্যানেল।

নেপালের পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাগুলোর অভিযোগ, ভারতীয় সংবাদ চ্যানেলগুলোতে তাদের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলির বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা হচ্ছে। চীনের সঙ্গে ওলির সম্পর্ক নিয়ে বিভ্রান্তিকর খবর পরিবেশন করছে ভারতীয় চ্যানেলগুলো।

এদিকে, বৃহস্পতিবারই নেপালের শাসকদল ‘নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি’র মুখপাত্র নারায়ণ কাজি শ্রেষ্ঠ ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন। তিনিও অভিযোগ জানিয়েছেন যে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে প্রধানমন্ত্রী ওলির বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে ভারতীয় মিডিয়ায়।

ভারতীয় বিশ্লেষকদের মতে, কাঠমান্ডুর নির্দেশেই এই কাজ করা হয়েছে। সম্প্রতি, নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারির সঙ্গে গোপনে বৈঠক করেছেন চীনের রাষ্ট্রদূত হউ ইয়ানকি। শুধু তাই নয়, দেশের শাসকদল ‘নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি’র অন্যতম শীর্ষনেতা মাধব কুমার নেপাল-সহ একাধিক শীর্ষস্তরের আমলার সঙ্গেও আলোচনা চালিয়েছেন চীনা রাষ্ট্রদূত।

ভারতীয় বিশ্লেষকদের মতে, প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলির মসনদ বাঁচাতেই আসরে নেমেছে চীন। নেপালের শাসকদলের মধ্যে কলহ মিটিয়ে ‘চীনপন্থী’ ওলিকেই আসনে রাখতে মরিয়া চীন। তাই মাধব নেপালের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন চীনা রাষ্ট্রদূত।

সূত্র : আজকাল