বিছানায় স্ত্রী-মেয়ের গলাকাটা লাশ, পাশেই ঝুলছিল স্বামী

রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলায় একটি ঘর থেকে এক শিশু ও তার বাবা-মায়ের লাশ করেছে পুলিশ। তাদের মধ্যে মা ও শিশুর লাশ গলাকাটা অবস্থায় বিছানায় পড়ে ছিল। আর গৃহকর্তার লাশ ঝুলছিল ঘরের আড়ার সঙ্গে।

শনিবার সকালে উপজেলার বড়বিল ইউনিয়নের বালাপাড়া গ্রামের একটি বাড়ি থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- হাফিজুল ইসলাম, তার স্ত্রী ফাতেমা এবং তাদের মেয়ে হুমায়রা।

স্থানীয়রা জনান, সকালে বাড়ির কারও সারাশব্দ না পেয়ে আশপাশের লোকজন ঘরে গিয়ে ফাতেমা ও তার মেয়ের গলাকাটা অবস্থায় বিছানায় লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পাশেই হাফিজুলের মরদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় ছিল। পরে তারা মরদেহটি নামিয়ে রাখেন।

তাদের মৃত্যুর কারণ এখনো স্পষ্ট হয়। তবে ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের জেরে শুক্রবার রাতের কোনো এক সময় স্ত্রী ও শিশু সন্তানকে গলাকেটে হত্যার পর হাফিজুল গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

গঙ্গাচড়া মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুশান্ত কুমার সরকার জানান, মরদেহগুলো সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি খতিয়ে দেখিছে পুলিশ।