ডাবের শাঁসে আপনার ত্বকের যত্ন নিন

গরমে ডাবের ঠান্ডা একগ্লাস পানি যেমন আপনার প্রাণ জুড়িয়ে দিতে পারে, তেমনি ডাবের শাঁস উপকার করতে পারে আপনার ত্বকের। মুখের দাগছোপ তুলতে ডাবের পানি দিয়ে মুখ ধোওয়ার রেওয়াজও বহুদিনের! ডাব দিয়ে তৈরি তিনটি দুর্দান্ত মাস্কের সন্ধান জেনে নিন।

এক্সফোলিয়েটিং মাস্ক : একটা টমেটোর শাঁস বের করে নিন, তাতে দুই টেবিল চামচ দুধ দিয়ে মিক্সারে ব্লেন্ড করে ফেলুন। এবার ওই মিশ্রণটায় আধকাপ ডাবের শাঁস যোগ করুন। ভালো করে মিশিয়ে মুখে আর গলায় মেখে লম্বা লম্বা স্ট্রোকে পাঁচ মিনিট এক্সফোলিয়েট করুন। আরও দশ মিনিট রাখুন, তারপর ধুয়ে তোয়ালে দিয়ে চেপে মুছে নিন। সংবেদনশীল ত্বকের পক্ষেও এই এক্সফোলিয়েটিং মাস্কটি খুবই উপযোগী।

নারিশিং মাস্ক : কচি ডাবের নরম শাঁস ব্লেন্ডারে দিয়ে মসৃণ করে বেটে নিন। তাতে কয়েক ফোঁটা আমন্ড বা হুইটজার্ম তেল যোগ করুন। মুখে আর গলায় ভালোভাবে মেখে ম্যাসাজ করুন। ম্যাসাজের পর আরও দশ মিনিট রাখুন। তারপর হালকা গরম পানিতে পাতলা কাপড় ডুবিয়ে মুছে ফেলুন।

টোনিং মাস্ক : নামমাত্র খরচে ডাবের পুষ্টিগুণ ত্বকে পৌঁছে দেওয়ার এর চেয়ে ভালো উপায় আর নেই! আধকাপ ডাবের পানি বা নারিকেলের দুধের সঙ্গে একচামচ শসার রস আর তিন ফোঁটা অ্যালোভেরার জেল মেশান। এই তরলটায় তুলো ডুবিয়ে তা দিয়ে মুখ আর গলা ভালো করে মুছে নিন। দশ মিনিট রেখে ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে ফেলুন। সমস্ত দাগছোপ দূর করে ত্বক উজ্জ্বল করে তোলার এর চেয়ে ভালো টোটকা আর পাবেন না!

সূত্র : গুগল