‌‘দিল্লির তাবলিগের লোকদের চিকিৎসার বদলে হত্যা করা উচিত’

দিল্লির নিজামুদ্দিনে তাবলিগ জামাতের সম্মেলনে কারানাভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসা না দিয়ে গুলি করে মারা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা প্রধান রাজ ঠাকরে।

শনিবার (৪ এপ্রিল) তিনি এ মুসলিমবিদ্বেষী মন্তব্য করেন বলে এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে।

রাজ ঠাকরে বলেন, নিজামুদ্দিনের মারকাজের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট তাবলিগ জামাতের লোকদের ব্যাপারে আমি মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে কথা বলেছি। এ ধরনের লোকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার দাবি করা হয়েছে। মারকাজের সঙ্গে জড়িত এ ধরনের লোকের ঔদ্ধত্য সহ্য করার মতো নয়। তাদের চিকিৎসা করার দরকার নেই, বরং তাদের গুলি করে মারা উচিত। এই মারাত্মক সঙ্কটে পুলিশ, নার্স এবং চিকিৎসকরা গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করছেন। যদি তাদের ওপরে আক্রমণ করা হয় তবে আক্রমণকারীকে শিক্ষা দেয়া উচিত।

তিনি আরও বলেন, দেশ এখন ভয়ঙ্কর সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এরকম অবস্থায় ওরা ধর্মটাকেই বড় করে দেখছে। এর মধ্যে যদি কোনও ষড়যন্ত্র থাকে তাহলে তাবলিগ জামাতে থাকা লোকজনকে পেটানো উচিত এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিও ভাইরাল করা উচিত।

এদিকে শনিবার ভারতের এক সরকারি সমীক্ষায় বলা হয়েছে, করোনায় এ পর্যন্ত আক্রান্তের ৩০ শতাংশ দিল্লির তাবলিগ জামাতের মারকাজের সাম্প্রতিক কর্মসূচির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ছিলেন।

ভারতে কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫২৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের। ভারতে বর্তমানে সবমিলিয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ৭২ জন। মোট মৃত্যু ৭৫ জন।