যশোরে ওসিসহ ৫ পুলিশ প্রত্যাহার

ফেনসিডিল ও গাঁজা আত্মসাতের অভিযোগে যশোরের শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমানসহ পাঁচ পুলিশকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার খুলনার ডিআইজি ড.মুহাম্মদ মহিদ উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক আদেশে তাদের প্রত্যাহার করা হয়।

ওসি আতাউর ছাড়াও শাস্তির শিকার অন্য পুলিশ সদস্যরা হলেন- শার্শা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আবুল হাসান, সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আবু বক্কর সিদ্দিক, কনস্টেবল মো. আব্দুল মান্নান ও মো. ইকবাল হোসেন।

প্রতাহার আদেশে বলা হয়, প্রশাসনিক কারণে শার্শা থানার ওসি আতাউর রহমানকে ক্লোজ (প্রত্যাহার) করে খুলনা রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ)-এ সংযুক্ত করা হলো। একই সঙ্গে এসআই মো. আবুল হাসান, এএসআই আবু বক্কর সিদ্দিক, কনস্টেবল মো. আব্দুল মান্নান ও মো. ইকবাল হোসেনকে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হলো।

পুলিশের একটি সূত্রে জানা গেছে, ওসি আতাউর ও তার সহযোগীরা উদ্ধার করা ৪৫০ বোতল ফেনসিডিল ও ১৬ কেজি গাঁজা আত্মসাৎ করে বলে অভিযোগ রয়েছে। সেই কারণে তাদের বিরুদ্ধে এই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

যশোর জেলা পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ‘একটি মামলার আলামত সঠিকভাবে সংগ্রহ না করার কারণে ওই পাঁচ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’