যতোদিন সংকট থাকবে আ.লীগ জনগণের পাশে আছে: কাদের

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে কোনো ধরনের গুজবে কান না দিতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। একইসঙ্গে তিনি বলেছেন, যতোদিন এই সংকট থাকবে সরকার ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা ততদিন জনগণের পাশে থাকবেন।

রোববার (২৯ মার্চ) আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডি রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই আহ্বান জানান তিনি। সংবাদ সম্মেলনটি বিটিভিতে রেকর্ড করা হয় এবং ফেসবুক লাইভ করা হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে সারাবিশ্ব মারাত্মক সংকটের মুখে। সব ধরনের স্বাভাবিক কার্যক্রম থমকে গেছে। কিন্তু মানবসভ্যতার অগ্রযাত্রা অবশ্যম্ভাবী। এই মানবিক বিপর্যয়ের মুখে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আওয়ামী লীগের সচেতনতামূলক ও সামাজিক কর্মসূচি সারাদেশে চলমান রয়েছে। বিজ্ঞানসম্মত স্বাস্থ্যবিধি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সারাদেশে সাধারণ মানুষের মাঝে করোনা প্রতিরোধ সামগ্রী বিতরণ ও খেটে খাওয়া অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।

সারাদেশের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন স্তরের মানুষ যারা জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছেন, তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ এ দেশের জনগণের সুখ-দুঃখ আবেগকে ধারণ করেই রাজনীতি করে। বৈশ্বিক এই সংকট মোকাবিলায় আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সার্বক্ষণিকভাবে সব পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছেন। গ্রহণ করছেন স্বল্পমেয়াদি ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা ও কর্মসূচি। যতদিন এই সংকট থাকবে শেখ হাসিনার সরকার ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা ততদিন জনগণের পাশে থাকবেন এবং সরকারের গৃহীত কার্যক্রম সারাদেশে অব্যাহত থাকবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সমাজের ধ্বনি ও বিত্তবানদের আহ্বান জানাই মানবিক বিপর্যয়ের এই দিনে আপনারা যার যার অবস্থান থেকে জনগণের পাশে দাঁড়ান। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন।

তিনি বলেন, অতীত ইতিহাস থেকে লক্ষ করা যায় এদেশের জনগণ সব সময় ধৈর্য ও দায়িত্বশীলতার সাথে সব ধরনের দুর্যোগ মোকাবেলা করেছে। কোন দুর্যোগের কাছেই তারা পরাজিত হয়নি। আপনারা কোনো প্রকার গুজবে কান দেবেন না। মারাত্মক করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে সতর্ক থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।