হাইকোর্টে ফের খালেদার জামিন আবেদন

জিয়া চ্যারিট্যাবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষে আবার জামিন আবেদন করেছেন তার আইনজীবীরা। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে তার আইনজীবীরা হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী সগীর হোসেন লিয়ন ঢাকাটাইমসকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত ১২ ডিসেম্বর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত খালেদা জিয়ার জামিন চেয়ে করা আপিল আবেদন খারিজ করে দেয়া হয়। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে ছয় বিচারপতির আপিল বেঞ্চ সর্বসম্মত এই সিদ্ধান্ত দেন।  তবে এসময় তার চিকিৎসাসংক্রান্ত বেশ কিছু পর্যবেক্ষণও দেয় সর্বোচ্চ আদালত।

পর্যবেক্ষণে আপিল বিভাগ বলেন, যদি আবেদনকারী (খালেদা জিয়া) প্রয়োজনীয় সম্মতি দেন, তাহলে মেডিকেল বোর্ড দ্রুত তার অ্যাডভান্স ট্রিটমেন্টের (বায়োলজিক এজেন্ট) জন্য পদক্ষেপ নেবে, যা বোর্ড সুপারিশ করেছে।

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে আছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। গত এপ্রিল থেকে অসুস্থ খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে কারা হেফাজতে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

সম্প্রতি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা খালেদা জিয়ার জামিনের ব্যাপারে আইনজীবীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। সেখানে এই মামলায় হাইকোর্টে আবার জামিন আবেদনের সিদ্ধান্ত হয়। আইনজীবীরা আশা করছেন, এবার জামিন দিয়ে আদালত দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন।

এদিকে খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তি পাচ্ছেন বলে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সম্প্রতি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সঙ্গে খালেদা জিয়ার জামিনের ব্যাপারে ফোনে কথা বলেছেন। তবে সেখানে প্যারোলের ব্যাপারে কথা হয়নি বলে দাবি করছেন বিএনপি মহাসচিব। যদিও ওবায়দুল কাদের দাবি করছেন, কথা হয়েছে এবং তার কাছে প্রমাণ আছে।