রাওয়ালপিন্ডিতে তামিম-মুমিনুলরা

পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট খেলতে এখন রাওয়ালপিন্ডিতে পুরো বাংলাদেশ দল। প্রথমে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকা থেকে দোহা হয়ে স্থানীয় সময় বুধবার সকালে ইসলামাবাদে পৌঁছায় তামিম ইকবাল-মুমিনুল হকরা। ওখান থেকে ঘণ্টাখানেকের দূরত্বে পুরো দল রাওয়ালপিন্ডিতে পৌঁছেছে স্থানীয় সময় সকাল ১০টায়। তিন ধাপের সফরে দ্বিতীয়বার পাকিস্তান গেছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানিয়েছে, বিজনেস ক্লাসের টিকিট না পাওয়ায় দুটি দলে ভাগ হয়ে দেশ ছেড়েছে বাংলাদেশ। মঙ্গলবার বিকালে ৫টা ৫০ মিনিটে কাতার এয়ারওয়েজে করে দোহা রওনা দেন ৬ জন। এরা হলেন−মোহাম্মদ মিঠুন, ইবাদত হোসেন, সৌম্য সরকার, তাইজুল ইসলাম, স্ট্রেন্থ ও কন্ডিশনিং কোচ মারিও ভিল্লাভারায়ণ ও নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন।

এর পরে সন্ধ্যা ৬টা ৫০ মিনিটে গেছেন টেস্ট দলের বাকি সদস্যরা। আলাদা ফ্লাইটে ঢাকা থেকে দোহা গেলেও পুরো দল একসঙ্গে গেছে ইসলামাবাদে। সেখান থেকে একই গাড়িতে করে টেস্ট দল পৌঁছেছে রাওয়ালপিন্ডি।

পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি শুরু হবে প্রথম টেস্ট। পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ ভালো না কাটলেও টেস্ট জয়ের স্বপ্ন বাংলাদেশের। পাকিস্তানে যাওয়ার আগে বিসিএলে অংশ নিয়েছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। সেখানে দারুণ পারফর্ম করে প্রস্তুতি সেরেছেন টেস্ট স্কোয়াডে থাকা ক্রিকেটাররা। যাওয়ার আগে জয়ের প্রত্যাশার কথা জানিয়ে গেছেন অনেকেই।

গত কয়েকটি টেস্ট নিয়মিত খেলা পেসার ইবাদত হোসেন যেমনটি বলেছেন আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে, ‘তামিম ভাই, মুমিনুল ভাই খুব ভালো একটা অবস্থানে আছে। অন্যরাও ভালো ফর্মে আছে। আমরা যদি ভালো খেলতে পারি, তাহলে অবশ্যই পাকিস্তানকে হারানো সম্ভব।’

উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুনও বলে গেছেন তেমনটা, ‘ভারতে কঠিন সময় গেছে। ওখান থেকে আমরা শিক্ষা নিয়েছি। আশা করি পাকিস্তানে ভালো করতে পারবো, সেই বিশ্বাস নিয়েই পাকিস্তান যাচ্ছি।’

টেস্ট শুরুর আগে বুধবার বিকালে রাওয়ালপিন্ডি স্টেডিয়ামে প্রথম অনুশীলন করবে বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার আরও একবেলা অনুশীলন করে শুক্রবার মাঠে নামবে সফরকারীরা।

প্রথম টেস্টে বাংলাদেশ স্কোয়াড: মুমিনুল হক (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মো. মিঠুন, লিটন কুমার দাস, তাইজুল ইসলাম, নাঈম হাসান, এবাদত হোসেন, আবু জায়েদ রাহি, আল-আমিন হোসেন, রুবেল হোসেন এবং সৌম্য সরকার।