মাকে বঁটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করল মেয়ে

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় মেয়ে কর্তৃক নিজের মাকে বঁটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যার খবর পাওয়া গেছ। বুধবার সকাল দশটার দিকে মঠবাড়িয়া শহরের কলেজপাড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ লাশ উদ্ধারের পর মেয়ে তামান্না জেবীনকে (৩০) আটক করেছে।

নিহত ওই নারীর নাম ফিরোজা নাসরিন (৫৫)। তিনি শহরের কলেজ পাড়ার সাবেক অগ্রণী ব্যাংক ব্যবস্থাপক মৃত হেমায়েত উদ্দিন হাওলাদারের স্ত্রী ।

থানা ও স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে, গত ১০ বছর আগে মেয়ে তামান্না জেবীনের বিয়ে হয়। অল্প কিছুদিনের মধ্যে তাদের বিচ্ছেদ হলে তামান্না মায়ের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। মঙ্গলবার মায়ের সঙ্গে ঝগড়া হয় তামান্নার। বুধবার সকাল দশটার দিকে মা ফিরোজা নাসরিন রান্নার কাজ করছিলেন। এসময় হঠাৎ মেয়ে জেবীন ধারালো বঁটি দিয়ে নৃশংসভাবে তাকে কুপিয়ে জখম করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

ফিরোজা নাসরিনের ছেলে রিয়াজ উদ্দিন জানান, পৌনে এগারটার দিকে বাসায় এসে দরোজা খোলার জন্য মাকে ডাকেন। কিন্তু কারও কোনও সাড়া না পেয়ে প্রতিবেশীদের ডেকে দরোজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢোকেন। ঘরে ডুকে তিনি বোনকে বিছানায় নিস্তেজ হয়ে পড়ে থাকতে এবং রান্না ঘরে বৃদ্ধা মায়ের রক্তাক্ত লাশ পড়ে থাকতে দেখেন।

এ বিষয়ে মসঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আ.জ.ম মাসুদুজ্জামান বলেন, ঘটনা তদন্ত করে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হবে।