সোনার বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন দেখতে হবে: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন,একটি স্বাধীন সার্বভৌমত্ব রাষ্ট্রের জন্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বপ্ন দেখেছিলেন। সে স্বপ্ন বাস্তবায়নে জন্য তারই কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০৪১ সালের উন্নত রাষ্ট্র অর্জনে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আজ যে অর্জনের স্বপ্ন আমরা দেখছি, তা বাস্তবায়নে শিক্ষার্থীরাই হবে মূল কারিগর। স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন দেখতে হবে। তারাই আজকের বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলবে। ৪৯ তম শীতকালীন জাতীয় স্কুল, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা ক্রীড়া প্রাতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এই কথা বলেন। শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে এই অনুষ্ঠান হয়।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ‘বাল্যবিবাহ, যৌতুক, যৌন হয়রানি, মাদক, সন্ত্রাস এবং জঙ্গিবাদী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, নারীর ক্ষমতা বৃদ্ধি এবং জাতির উন্নয়নে শিক্ষার্থীরা অন্যতম অধ্যায়। শিক্ষার্থীরা সব ধরনের সংকীর্ণতা থেকে নিজেদের দূরে রাখবে। নিজেরা সচেতন হবে এবং অন্যদেরও সচেতন করবে। এই দেশকে শিক্ষার্থীরাই এগিয়ে নিয়ে যাবে। তারাই গড়ে তুলবে আগামীর সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বিজয়ী জাতি। আমরা মুক্তিযুদ্ধ করে বহু রক্তের বিনিময়ে বিজয় অর্জন করেছি। এই বিজয়ী জাতি কারও কাছে মাথানত করে না। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন আমাদের কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না, সত্যি তাই। আজকের বাংলাদেশকে সারাবিশ্ব দেখছে এবং বলছে এই বাংলাদেশকে কেউ দামিয়ে রাখতে পারবে না।’

বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষা মন্ত্রালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এমপি, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মুনশী শাহাবুদ্দীন আহমেদ, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর, পুলিশ সুপার সৈয়দ নূরুল ইসলাম বিপিএম (বার) পিপিএম, কুমিল্লা সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক রুহুল আমিন, ভিক্টোরিয়া কলেজের অধ্যক্ষ আবদুস রশিদ, কুমিল্লা সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আবু নাছের প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. আবদুস ছালাম। ৬ দিন ব্যাপি এই প্রতিযোগিতা শেষ হবে ২২ জানুয়ারি। ৪৯ তম শীতকালীন জাতীয় স্কুল, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা ক্রীড়া প্রাতিযোগিতায় ১১টি শিক্ষা বোর্ডের ৮০৮ জন ক্রীড়াবিদ ৭টি ইভেন্টে অংশ নেবে। ব্যাডমিন্টন, ভলিবল, বাস্কেট বল, হকি, ক্রিকেট, টেবিল টেনিস ও এ্যাথলেটিকসে আলাদা আলাদা ভ্যানুতে অংশ নেবে ছেলে-মেয়েরা।