শীতে শুষ্ক ত্বক থেকে রক্ষা পেতে

চলছে শীতকাল। এই শীতে ঠান্ডা ছাড়াও একটি সমস্যার সঙ্গে মোকাবেলা করতে হয়। তা হলো ত্বকের সমস্যা। শীতকাল এলেই এই ত্বকের সমস্যায় জেরবার হন সবাই। ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে যায়। অনেক সময় পায়ের নিচে চামড়া ফাটতে পারে। এই পরিস্থিতি মোকাবেলা করার অবশ্য একাধিক উপায় রয়েছে।

ত্বকের সমস্যা কমবেশি সবারই রয়েছে। কারো ত্বক তৈলাক্ত। তাদের ক্ষেত্রে শীতকালে এই সমস্যা একটু কম দেখা যায়। কিন্তু যাদের ত্বক শুষ্ক প্রকৃতির, শীতকাল এলেই তাদের ত্বক আরও শুষ্ক হয়ে যায়। কারণ তাদের ত্বক অনেক বেশি সংবেদনশীল। এর যত্ন না নিলে কিন্তু ত্বক খারাপ হয়ে যেতে পারে।

কীভাবে শীতকালে নিজের ত্বকের যত্ন নেবেন? জেনে নিন।

ত্বকের সমস্যা দূর করার একটা অন্যতম ভালো জিনিস হল ওটমিল। চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন, এই ওটমিল ত্বকে পিএইচ ( pH ) পরিমাণের মাত্রা ও ভারসাম্য স্বাভাবিক রাখে। ফলে ত্বক শুষ্ক কম হয়। শীতেও ত্বকের রুক্ষতার হাত থেকে বাঁচার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উপায় হলো এই ওটমিল।

ত্বকের শুষ্কতা রক্ষার আরও একটি উপায় হলো ময়শ্চারাইজারের ব্যবহার। যাদের ত্বক খুব বেশি শুষ্ক তারা গোসলের পরেই ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করুন। শুধু তাই নয়, সারাদিনে একটা নির্দিষ্ট সময় অন্তর ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। তাতে ত্বক সবসময় নরম ও স্বাভাবিক থাকবে। তা রুক্ষ হওয়ার সুযোগ পাবে না।

তবে ময়শ্চারাইজার ব্যবহারের সময় মাথায় রাখতে হবে, তা যেন খুব বেশি চড়া গন্ধের ও খুব বেশি তৈলাক্ত না হয়। তার থেকে হালকা গন্ধের নরম ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করুন। আর ত্বক মসৃণ রাখুন।

চিকিৎসকদের পরামর্শ, শীতে ত্বক স্বাভাবিক রাখার আর একটি পদ্ধতি হলো প্রচুর পরিমাণে পানি খাওয়া। শীতকাল এলে মানুষের পানি খাওয়ার পরিমাণ কমে যায়। আর এই পানি খাওয়া কমে গেলে তার প্রভাব পড়ে ত্বকে। ফলে শীতেও পর্যাপ্ত জল খাওয়া উচিত। সেইসঙ্গে নিজের ডায়েট স্বাভাবিক রাখারও পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ মানুষের খাওয়া-দাওয়ার সঙ্গে ত্বকের সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে।

এই কয়েকটি জিনিস মেনে চললেই চরম ঠান্ডাতেও আপনার ত্বক হবে না শুষ্ক ও রুক্ষ। নরম ও মোলায়েম ত্বকের অধিকারী হবেন আপনি।