ঢাকা সিটি নির্বাচনে সমন্বয়কের দায়িত্বে আমু-তোফায়েল

প্রবীণ দুই নেতা আমির হোসেন আমু এবং তোফায়েল আহমেদকে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সমন্বয়কের দায়িত্ব দিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। আমু দক্ষিণ সিটিতে এবং তোফায়েল উত্তর সিটিতে দলের হয়ে সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করবেন।

শুক্রবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যদের নিয়ে অনুষ্ঠিত যৌথসভায় তাদের এই দায়িত্ব দেয়া হয়।

সভায় উপস্থিত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর একজন সদস্য ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘আনুষ্ঠানিকভাবে দলের পক্ষ থেকে কোনো কমিটি করা হয়নি। তবে নেত্রী (শেখ হাসিনা) আমাদের দলের দুই প্রবীণ নেতাকে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে বলেছেন। আমরা যদি কোনো কমিটি করি সেটা আগামীকাল জানানো হবে।’

আওয়ামী লীগের একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনা কমিটিতে সদস্য সচিব হিসেবে থাকতে পারেন ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনা কমিটিতে সদস্য সচিব থাকতে পারেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির।

দলীয় সূত্র জানায়, ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকার প্রার্থী ও কাউন্সিলর পদে দল সমর্থিত প্রার্থীদের বিজয় নিশ্চিত করতে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সংখ্যা এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি। কেন্দ্রীয় কমিটি ও উপদেষ্টা পরিষদের যারা যারা কাজ করতে আগ্রহী, তাদের অন্তর্ভুক্ত করা হবে কমিটিতে।

আমির হোসেন আমু এবং তোফায়েল আহমের দুজনই আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য। তারা দুজনই একাধিক কমিটিতে দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ছিলেন। দুজনই সাবেক মন্ত্রী এবং বর্তমান সংসদ সদস্য।

আগামী ৩০ জানুয়ারির নির্বাচনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন থেকে আওয়ামী লীগের হয়ে নৌকা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন শেখ ফজলে নূর তাপস, যিনি ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য পদ থেকে সম্প্রতি পদত্যাগ করেছেন। আর উত্তর সিটি করপোরেশনে নৌকা নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সাবেক মেয়র আতিকুল ইসলাম।

বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলো অংশ নেয়ায় এবারের নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে বলে মনে করছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এজন্য নিজস্ব প্রার্থীকে জেতাতে তারা প্রচেষ্টার কোনো কমতি রাখছে না। সেই প্রচেষ্টার অংশ হিসেবেই নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করেছে দলটি। যেখানে দলের প্রবীণ ও অভিজ্ঞ দুই নেতাকে সমন্বয়কের দায়িত্ব দেয়া হলো।