টন্সিলাইটিস হলে কী করবেন | |

টন্সিলাইটিস হলে কী করবেন

টনসিল শব্দটির সঙ্গে আমরা প্রত্যেকেই কম-বেশি পরিচিত। টনসিল এক ধরনের লিম্ফ নোড বা গ্রন্থি যা আমাদের গলার পিছনের দিকের অংশে থাকে। টনসিল আমাদের দেহে শ্বেত রক্তকণিকা উত্পন্ন করে যা বাইরে থেকে দেহে প্রবেশকারী জীবাণু ধ্বংস করে। কিন্তু কখনো কখনো এসব জীবাণুকে ধ্বংস করতে গিয়ে টনসিলগ্রন্থি নিজেই আক্রান্ত হয়ে পড়ে। ফলে ইনফেকশন হয় এবং এই গ্রন্থি ফুলে যায়। একে মেডিক্যালের ভাষায় টন্সিলাইটিস বলা হয়। শিশু-কিশোরদের মধ্যে এই সমস্যা বেশি দেখা দিলেও যে কোনো বয়সি মানুষেরই টন্সিলাইটিস হতে পারে।

স্ট্রেপটোকক্কাল ব্যাকটেরিয়া দ্বারা বেশিরভাগ টন্সিলাইটিস হয়ে থাকে। এর লক্ষণগুলো হলো—দুই দিনের বেশি সময় গলা ব্যথা এবং খাবার গিলতে ব্যথা হওয়া, গলা ফুলে যাওয়া, গলার স্বর পরিবর্তন হওয়া, খাবারে অরুচি, জ্বর, মাথাব্যথা ইত্যাদি। কিছু কিছু ক্ষেত্রে এই সমস্যা নিজ থেকেই ঠিক হয়ে যায়। যদি নিজ থেকে ঠিক না হয় তখন দ্রুত চিকিত্সকের পরামর্শ নিতে হবে। তিন-চার দিনের বেশি সময় ধরে গলা ব্যথা থাকলে, জ্বর আসলে এবং গিলতে কষ্ট হলে চিকিত্সকের পরামর্শ মতো চিকিত্সা নিলে টন্সিলাইটিস ভালো হয়ে যায়। কিন্তু যদি ইনফেকশন বছরে চার-পাঁচবার পর পর দুই বছর হয় তখন একে ক্রনিক টন্সিলাইটিস বলে। সেই ক্ষেত্রে অপারেশনের প্রয়োজন হতে পারে।

লেখক: ত্বক, লেজার অ্যান্ড অ্যাসথেটিক বিশেষজ্ঞ