এশিয়ার সবচেয়ে ধারণক্ষমতা সম্পন্ন স্টেডিয়াম তৈরি হচ্ছে বাংলাদেশে! | |

এশিয়ার সবচেয়ে ধারণক্ষমতা সম্পন্ন স্টেডিয়াম তৈরি হচ্ছে বাংলাদেশে!

বর্তমানে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় স্টেডিয়াম হল বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম। যার দর্শক ধারণ ক্ষমতা ৩৬ হাজার। তবে ইতিমধ্যেই বাংলাদেশে তৈরি হতে যাচ্ছে এশিয়ার সবচেয়ে ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন একটি স্টেডিয়াম। স্টেডিয়ামটি দেখতে ঠিক যেন বিশালাকার একটা নৌকা। যেটি পেটে ধারণ করছে আস্ত একটা সবুজ ক্রিকেট মাঠ। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রিকেটের বড় ভক্ত। তাঁকে সম্মান জানাতেই এই স্টেডিয়ামের নাম রাখা হয়েছে শেখ হাসিনা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়াম। সম্পূর্ণ নৌকার আকৃতিতেই গড়ে তোলা হচ্ছে স্টেডিয়ামটি। এমন সুন্দর এবং আধুনিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম এতদিন বাংলাদেশে ছিল না।

নৌকার আকৃতির হওয়ার একে বোট স্টেডিয়ামও বলা হয়। বাংলাদেশের স্মার্ট সিটি পূর্বাঞ্চলে সেক্টর ১-এ ৩৮ একর জমির উপর গড়ে তোলা হচ্ছে এই স্টেডিয়াম। ২০১৮ সাল থেকে এর কাজ শুরু হয়েছে। সব কিছু ঠিক থাকলে ২০২২-এ কাজ সম্পূর্ণ হওয়ার কথা এই স্টেডিয়ামের। এতে খেলা দেখার জন্য তিন তলা গ্যালারি এবং একটা মিডিয়া সেন্টারও থাকবে। খেলোয়াড়দের অনুশীলনের জন্য থাকছে আলাদা ব্যবস্থা। স্টেডিয়ামটি তৈরি করতে আনুমানিক খরচ হবে ১৪০ মিলিয়ন ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় মুদ্রায় প্রায় এক হাজার দুইশত কোটি টাকার চেয়েও বেশি।

তাই এটিই আগামী দিনে এশিয়ার সবচেয়ে ব্যয়বহুল ক্রিকেট স্টেডিয়াম। এই স্টেডিয়ামের ধারণ ক্ষমতা প্রথমে ৫০ হাজার করা হলেও ধাপে ধাপে তা বাড়িয়ে এক লাখ পর্যন্ত করা হবে। এ ছাড়াও এই স্টেডিয়াম বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান কার্যালয়। বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটের ঘরের মাঠও হবে এটি। এতদিন এই দলের ঘরের মাঠ ছিল শের-ই-বাংলা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়াম অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ক্রিকেট স্টে়ডিয়াম। এই স্টেডিয়ামে এক লাখেরও বেশি দর্শক খেলা দেখতে পারেন। আর মাঠের আকার দৈর্ঘ্যে ১৭১ মিটার এবং প্রস্থে ১৪৬ মিটার। মেলবোর্নের পরেই কলকাতার ইডেন গার্ডেন্স স্টেডিয়ামের। এর ধারণ ক্ষমতা ৬৮ হাজার। ইডেন গার্ডেন্স বিশ্বের দ্বিতীয় এবং এখনও পর্যন্ত ভারতের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়াম।