বিয়ে সারলেন ‘জাস্ট ফ্রেন্ড’ সৃজিত-মিথিলা | |

বিয়ে সারলেন ‘জাস্ট ফ্রেন্ড’ সৃজিত-মিথিলা

বন্ধুত্ব থেকে প্রেম, অতঃপর সেটিকে বিয়ের বাঁধনে জড়ালেন কলকাতার মেধাবী নির্মাতা সৃজিত মুখার্জী ও বাংলাদেশের তারকা মডেল ও অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা।

আজ শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে পশ্চিমবঙ্গের একাধিক গণমাধ্যম।

বিয়ের পোশাকে সৃজিত ও মিথিলার একটি ছবিও প্রকাশ পেয়েছে। ছবিতে মিথিলার পরনে লাল জামদানি শাড়ি ও কালো পায়জামা-পাঞ্জাবির সঙ্গে লাল জহরকোটে দেখা গেছে সৃজিতকে। ছবিটি সোশাল মিডিয়ায় আসতেই দুজনের পক্ষ থেকে শুভাকাঙ্খিরা সেটি শেয়ার করে তাদের শুভ কামনা জানিয়েছেন। সবাই নবদম্পতির জন্য আশীর্বাদ করেন।

ঘরোয়াভাবে সৃজিত-মিথিলার বিয়েতে দুই পরিবারের আত্মীয়-স্বজন ছাড়া তেমন আর কেউ থাকবেন না, এটা আগেই জানিয়েছিলেন তারা।

বহুদিন ধরেই কলকাতার নির্মাতা সৃজিত মুখার্জীর সঙ্গে মিথিলার প্রেমের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিলো। কিন্তু সব সময় সম্পর্কের বিষয়টি অস্বীকার করে এসেছেন তারা। বিষয়টিকে ‘জাস্ট ফ্রেন্ড’ বলে ইতি টানতেন।

গেল মাসেও গুঞ্জন উঠেছিলো যে, মিথিলার পরিবারের কাছে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে বাংলাদেশে এসেছেন সৃজিত। এসময় দুজনকে ঢাকা আর্মি স্টেডিয়ামে ফোকফেস্ট-এও একসঙ্গে দেখা গেছে।

যদিও বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে বাংলাদেশে আসার বিষয়টি বরাবরের মতো সেসময় অস্বীকার করেছিলেন সৃজিত। কিন্তু এটা যে সত্যি সত্যিই বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে আসা ছিলো, তা আজ স্বীকার করেছেন সৃজিত-মিথিলা।

বাংলাদেশের জনপ্রিয় গায়ক অর্ণবের একটি মিউজিক ভিডিওতে কাজের সুবাদে সৃজিতের সঙ্গে মিথিলার দেখা হয়। এরপর ফেসবুকের মাধ্যমে সৃজিত এবং মিথিলার নিয়মিত যোগাযোগ চলতে থাকে। নিজেদের মাঝে অনেক মিল খুঁজে পাওয়ায় ভালো বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। যা আজ বিয়েতে পরিণতি পেল।

চলতি বছরের ২০ জুলাই তাহসানের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে যৌথভাবে বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দেন তাহসান ও মিথিলা।

মিথিলা তখন বলেছিলেন, প্রায় দুই বছর ধরেই তাহসান ও তিনি আলাদাভাবে থেকে আসছিলেন। আলাদা থেকে তারা নিজেদের মধ্যকার সমস্যাগুলো মিটমাটের চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বোঝাপড়া না হওয়ায় চূড়ান্ত বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন তারা। মে মাসে তাদের প্রায় ১১ বছরের সংসারের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি হয়েছে।

তাহসান ও মিথিলা ২০০৬ সালে ৩ আগস্ট বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। আইরা তেহরীম খান তাহসান-মিথিলা দম্পতির একমাত্র সন্তান। তাহসান মিথিলার পরিচয় গানের মাধ্যমে। তাহসান তখন ব্ল্যাক ব্যান্ডের গায়ক। এক বন্ধুর সঙ্গে তাহসানের আড্ডায় গান শুনতে যান মিথিলা। এরপর ধীরে ধীরে সম্পর্ক পরিণয়ে গড়ায়। বিয়ের পর এ জুটি একাধিক নাটকে অভিনয় করেছেন। ‘আমার গল্পে তুমি’, ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস’, ‘ল্যান্ডফোনের দিনগুলোতে প্রেম’, ‘মধুরেন সমাপয়েত’ নাটকসহ বেশ কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেন এই জুটি। নাটক ছাড়াও এ জুটি একসঙ্গে গানও গেয়েছেন।