ইলিয়াস কাঞ্চনের বিরুদ্ধে বলা মন্তব্যে নিয়ে যা বললেন শাজাহান খান

নিরাপদ সড়কের জন্য দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে যাওয়া চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের বিরুদ্ধে মন্তব্য করে বিপাকে পড়েছেন সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খান। তিনি বলেছিলেন, ‘ইলিয়াস কাঞ্চন কোথা থেকে কত টাকা পান, কী উদ্দেশ্যে পান, সেখান থেকে কত টাকা নিজে নেন, পুত্রের নামে নেন, পুত্রবধূর নামে লাখ লাখ টাকা নেন; সেই হিসাব আমি জনসমক্ষে তুলে ধরব।’ এরপর থেকেই সমালোচনায় সরব হয়েছেন দেশের নাগরিকরা।

ইলিয়াস কাঞ্চনের বিরুদ্ধে এসব মন্তব্য করার কারণ জানতে চাইলে মিস্টার খান বলেন, ইলিয়াস কাঞ্চন জনগণের মধ্যে পরিবহন শ্রমিকদের বিরুদ্ধে একটা দৃষ্টিভঙ্গি তৈরির চেষ্টা করছেন। আর এ কারণেই তার বিরুদ্ধে তিনি এসব মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, ‘উনি পাবলিকের মধ্যে শ্রমিকদের বিরুদ্ধে একটি সেন্টিমেন্ট তৈরি করতে চান, এজন্যই আমি এসব কথা বলেছি।’ ২০১৮ সালে নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নামার পর চলতি বছর নিরাপদ সড়ক পরিবহন আইন পাস হয়। সম্প্রতি আইনটি কার্যকরও করা হয়। শাজাহান খান বলেন, ‘নতুন এই আইনে কিছু অসঙ্গতি রয়েছে। এ অবস্থায় এই আইন বাস্তবিক পক্ষে কার্যকর করা সম্ভব নয়।’ কিন্তু ইলিয়াস কাঞ্চন এসব অসঙ্গতি রেখেই আইন কার্যকরের পক্ষে প্রচার চালিয়ে আসছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। শাজাহান খান বলেন, ‘শ্রমিকরা এটা কখনোই মেনে নেবে না।’

শাজাহান খান আরও বলেন, ‘উনি (ইলিয়াস কাঞ্চন) একটা এনজিও চালান। যেটি দেশের টাকা পায় বিদেশের টাকা পায়। কিন্তু উনি কি ড্রাইভার সৃষ্টি করতে পারছেন? উনার তো একটা ড্রাইভিং স্কুল আছে। কিন্তু সেখানে ৭ বছরে মাত্র ৪১১ জন ড্রাইভার তৈরি করছে। উনি এই কথা বলেন কি করে?’ শাজাহান খানের এমন মন্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ আসে ইলিয়াস কাঞ্চনের সংগঠন নিরাপদ সড়ক চাই- নিসচা’র পক্ষ থেকেও। শাহজাহান খানের এসব অভিযোগের বিরুদ্ধে রবিবার (৮ ডিসেম্বর) প্রতিবাদ জানিয়েছে নিসচা। এ বিষয়ে ইলিয়াস কাঞ্চনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মেয়ে ফারিহা ফাতেহ জানান, ইলিয়াস কাঞ্চন চিকিৎসার জন্য বর্তমানে ভারতে রয়েছেন। যার কারণে তার মুঠোফোনটি বন্ধ রয়েছে। তবে দুই-একদিনের মধ্যে তিনি দেশে ফিরবেন বলে জানিয়েছেন মেয়ে ফারিহা। সংগঠনটির আন্তর্জাতিক সম্পাদক মিরাজুল মইন জয় দেশের এক গণমাধ্যমকে বলেন, ‘মিডিয়ার সামনে এ ধরণের কথা বলায় বিস্মিত হয়েছি আমরা। নিসচার চেয়ারম্যানের উপর আঙ্গুল তোলা মানে নিসচা’র সবার উপরই আঙ্গুল তোলা।’ শাজাহান খানের এসব অভিযোগের সবগুলোই ভিত্তিহীন বলেও জানান তিনি। একই সাথে দাবি করেন, শাজাহান খানকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এসব অভিযোগের প্রমাণ দিতে হবে। আর সেটি না পারলে ক্ষমা চাইতে হবে। জয় বলেন, এ ধরণের মন্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে নিসচা একটি বিবৃতি দিয়েছে। এছাড়া কাঞ্চন দেশে ফেরার পর তার সাথে পরামর্শ করে শাজাহান খানের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার কথাও ভাবছেন তারা বলে জানান জয়।