সৌদি থেকে মায়ের বুকে ফিরছে ওরা ৪ জন, তবে লাশ হয়ে | |

সৌদি থেকে মায়ের বুকে ফিরছে ওরা ৪ জন, তবে লাশ হয়ে

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার চার যুবকের লাশ বুধবার (১৬ অক্টোবর) ভোরে ঢাকায় এসে পৌঁছাবে। গত ২৩ আগস্ট সৌদি আরবের মদিনার আল ফাহাদ কোম্পানিতে কাজ শেষে পিকআপ ভ্যানে করে বাসায় ফিরছিলেন আড়াইহাজার উপজেলার চার যুবক। পথে তাদের বহনকারী পিকআপের চাকা ফেটে প্রাইভেটকরের সঙ্গে ধাক্কা লেগে পিকআপ ভ্যানটি উল্টে যায় এবং ঘটনাস্থলেই তারা মারা যান। পরে তাদের মরদেহ মদিনা কিং ফাহাদ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছিল। গত দেড় মাস ধরে পরিবার লোকজন শেষ বারের মত সন্তানের মুখটি দেখার জন্য অপেক্ষা করছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে অভিবাসী কর্মী উন্নয়ন প্রোগ্রামের (ওকাপ) আড়াইহাজার শাখার ফিল্ড অফিসার আমিনুল হক জানান, সৌদি এয়ারলাইলান্সের একটি ফ্লাইটে করে সৌদি আরব থেকে আড়াইহাজার উপজেলার চার যুবকের লাশ দেশে আসবে। বুধবার (১৬ অক্টোবর) সকালে লাশ চারটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছাবে। নিহতের পরিবারকে লাশ গ্রহণ করার জন্য ইতোমধ্যে সৌদিস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে জানানো হয়েছে। নিহতরা হলেন- উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের বদলপুর গ্রামের জব্বর মিয়ার ছেলে সুরুজ মিয়া, একই এলাকার মোতালিব ব্যাপারির ছেলে নুরে আলম ওরফে নুরা মিয়া, খালিয়ারচর গ্রামের মোকারমের ছেলে উজ্জল এবং খাগকান্দা ইউনিয়নের চম্পকনগর গ্রামের আক্রম আলীর ছেলে রাসেল।