সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য আইনের সমান সুযোগ নিশ্চিত করার আহবান স্পিকারের

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য আইনের সমান সুযোগ প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে তরুণ আইনজীবীদের কাজ করতে হবে।
তিনি আজ বৃহস্পতিবার মানিকগঞ্জের কৈট্টায় প্রশিকা রিসোর্টে “২০তম মানবাধিকার গ্রীষ্মকালীন স্কুল” শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহবান জানান।
স্পিকার বলেন, আইনের শাসন ব্যতিত কোন সোসাইটির উন্নয়ন সম্ভব নয়। এসময় তিনি আইন প্রয়োগের ক্ষেত্রে যৌক্তিকতাকে বিবেচনায় নেয়ারও আহবান জানান।
এসময় তিনি দশ দিনব্যাপী এ আবাসিক কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন করেন। এবারের প্রতিপাদ্য নির্ধারিত হয়েছে ” ‘হিউম্যান রাইটস এন্ড রিবেলিয়াস লয়ারিং’।
ড. শিরীন শারমিন বলেন, ১৯৭২ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতিকে সংবিধান উপহার দিয়েছেন। এটি পৃথিবীর অনন্য সংবিধান। মানবাধিকার সংরক্ষণ সংক্রান্ত সব কিছু এটিতে সন্নিবেশ করা হয়েছে। এটাকে বাস্তব প্রয়োগের মাধ্যমে বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।
তিনি বলেন, বিচারপ্রার্থী জনগণের জন্য বিচারের সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে। প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য বিচারের দ্বার উন্মুক্ত করতে হবে। তাহলেই দেশে ন্যায়বিচার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা পাবে।
জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্ণর প্রফেসর আতিউর রহমান, এম্পাওয়ারমেন্ট থ্রু ল অব দ্য কমন পিপল এর নির্বাহি পরিচালক তাপস কান্তি বল এবং হিউম্যান রাইটস সামার স্কুলের পরিচালক প্রফেসর মাসুম বিল্লাহ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।
কর্মসূচিতে দক্ষিণ এশিয় অঞ্চলের ৪২ জন আইন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। এখান থেকে শিক্ষার্থীগণ সামাজিক ন্যায় বিচার, মানবাধিকার আইন ও জনগণের আর্থ সামাজিক মুক্তির জন্য করণীয় সম্পর্কে জ্ঞান লাভে সক্ষম হবেন।

সূত্রঃ বাসস