শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে ফেরি বন্ধ, দুর্ভোগ চরমে | |

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে ফেরি বন্ধ, দুর্ভোগ চরমে

পদ্মা নদীতে নাব্যতা সংকটে মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ও মাদারীপুর শিবচরের কাঁঠালবাড়ি নৌপথে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফেরি বন্ধ থাকায় লঞ্চ ও স্পিডবোটে চাপ বেড়েছে। তবে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে অ্যাম্বুলেন্স, পণ্যবাহী ট্রাক ও প্রাইভেট কারের যাত্রীসহ দক্ষিণাঞ্চলের যাত্রী সাধারণকে। ঘাটে আটকে রয়েছে পণ্যবাহী অসংখ্য পরিবহন। ঘাট কর্তৃপক্ষ বিকল্প হিসেবে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে।

বুধবার সকাল থেকেই লঞ্চ ও স্পিডবোটে সাধারণ যাত্রীদের উপচেপড়া ভিড় রয়েছে বলে জানিয়েছে লঞ্চ ও স্পিডবোট ঘাট সূত্র।

বিআইডব্লিউটিসি’র কাঁঠালবাড়ী ঘাট সূত্র জানিয়েছে, কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটের লৌহজং চ্যানেলে নাব্যতা সংকটের কারণে ফেরি চলাচল পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। পদ্মায় দ্রুত পানি কমতে থাকায় চ্যানেল মুখে নাব্যতা সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে। মঙ্গলবার থেকে ছোট-বড় কোনো ফেরিই চ্যানেল অতিক্রম করতে না পারায় কর্তৃপক্ষ ফেরি চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে। এ নৌরুটে চারটি রো রো, পাঁচটি ডাম্পসহ ১৮টি ফেরি চলাচল করতো।

জানা যায়, প্রায় এক মাস ধরে নাব্যতা সংকট ও স্রোতের কারণে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছিল। এ কারণে অর্ধেকের বেশি ফেরি প্রায় বন্ধ রাখতে হতো। গতকাল সকাল থেকে নৌ চ্যানেলে নাব্যতা–সংকট তীব্র আকার ধারণ করে। একই সঙ্গে মূল নদীতে ছিল তীব্র স্রোত। এতে চ্যানেলের মুখ দিয়ে ফেরি ঢুকতে পারছিল না। নাব্যতা সংকট প্রকট হওয়ায় গতকালের মতো আজও ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। এতে ঘাটে আটকা পড়েছে কয়ক শ যানবাহন। চরম দুর্ভোগে পড়ছেন এ পথের যাত্রী ও চালকেরা।

পণ্যবাহী পরিবহনের পাশাপাশি জরুরি পারাপারের জন্য ব্যক্তিগত পরিবহন, অ্যাম্বুলেন্সসহ দক্ষিণাঞ্চলের যাত্রীদের অসহনীয় দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। পণ্যবাহী কিছু কিছু পরিবহন বিকল্প রুটে ফিরে গেলেও ঘাট এলাকায় অসংখ্য পরিবহন আটকে আছে এখনো।

ঘাটে আটকে পড়া বাসের এক চালক বলেন, ঢাকা থেকে যাত্রী নিয়ে ভোরে ঘাটে আসি। ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করছি। ফেরি চলাচল শুরু না হওয়ায় যাত্রীরা অপেক্ষা করতে করতে বিরক্ত হয়ে পড়েন। দুপুরের দিকে তারা গাড়ি থেকে নেমে চলে গেছেন।

বিআইডব্লিউটিসি’র সহকারী ব্যবস্থাপক (মেরিন) আহমদ আলী জানান, নাব্যতা সংকট চরম আকার ধারণ করায় কোনো ফেরিই চলতে পারছে না। নাব্যতা নিরসন না হলে এ সংকট কবে নাগাদ কাটবে তাও বলা যাচ্ছে না।

কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক আব্দুস সালাম মিয়া বলেন, নৌরুটের সব ফেরি চলাচল বর্তমানে বন্ধ রয়েছে। আমরা পরিবহনগুলোকে বিকল্প রুট ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছি।