আয়ুষ্মান-তাহিরার ফিল্মি প্রেম কাহিনি | |

আয়ুষ্মান-তাহিরার ফিল্মি প্রেম কাহিনি

বলিউডের প্রতিষ্ঠিত তারকা আয়ুষ্মান খারানা। গত বছর ও চলতি বছরে তিনি পর পর কয়েকটি ব্যবসাসফল ছবি উপহার দিয়েছেন। তার অভিষেক ছবি ‘ভিকি ডোনার’ও ছিল সুপারহিট। কিন্তু এই নায়কের অভিনয় জগতে আসার পেছনে চূড়ান্ত পরিশ্রম রয়েছে। তাতে সব সময়ই তিনি পাশে পেয়েছেন স্ত্রী তাহিরা কাশ্যপকে।

২০১৮ সালে আয়ুষ্মানের স্ত্রী তাহিরার ব্রেস্ট ক্যানসার ধরা পড়ে। স্ত্রী এই স্ট্রাগল পিরিয়ডে আয়ুষ্মানও শক্ত করে তার হাত ধরে রয়েছেন। স্ত্রীয়ের মনের জোরেই এই মানসিক লড়াইয়ের শক্তি পেয়েছেন তিনি। কিছু দিন আগে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানান আয়ুষ্মান।

এই তারকা দম্পতির প্রেম কাহিনিটা বেশ ফিল্মি। তাহিরা এবং আয়ুষ্মান দুজনের বাড়িই ভারতের চণ্ডীগড়ে। দ্বাদশ শ্রেণির পদার্থবিদ্যার টিউশন ক্লাসে দুজনের দেখা। প্রথম দেখাতেই একে অপরের প্রতি ক্রাশ তৈরি হয়। কিন্তু কেউই বলে উঠতে পারেননি। ক্লাসের এক বন্ধু একবার আয়ুষ্মানকে বলেছিলেন যে, তাহিরা তাকে পছন্দ করেন।

তাহিরার প্রতি তখন ক্লাসের অনেক ছেলের ক্রাশ। তার উপর ক্লাসে আয়ুষ্মানের থেকেও অনেক হ্যান্ডসম ছেলে রয়েছে। তাহিরা পছন্দ করবে তাকে! বন্ধুর কথা কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না তিনি। কাউকে জিজ্ঞাসা করে বিষয়টা যাচাই করাও সম্ভব ছিল না। এর মাঝে তাদের দুজনের বাবা এসে পড়েন। কাহিনি অন্য দিকে মোড় নেয়।

তাহিরার বাবা একদিন তাকে জানান যে, তার এক পুরনো বন্ধুর বাড়ি ডিনারের দাওয়াত রয়েছে। সপরিবার তারা সেখানে যাবেন। ওই পুরনো বন্ধুটি আবার জ্যোতিষী। জ্যোতিষী শুনে তাহিরা ভীষণ উত্তেজিত হয়ে পড়েন। জ্যোতিষীর থেকে তার পরীক্ষার ফলাফলটা জেনে নেয়ার জন্য ব্যাকুল হয়ে পড়েন।

জ্যোতিষীর বাড়িতে পৌঁছে রীতিমতো থ হয়ে যান তাহিরা। এই বাড়িটাই আয়ুষ্মানদের। সেই দিনই প্রথম তারা একে অপরের সঙ্গে কথা বলেন। সারা রাত দুজনে গল্প করেছিলেন। আয়ুষ্মান গান গেয়ে শুনিয়েছিলেন। ক্রমে তাকে আরও ভালো লেগে যাচ্ছিল তাহিরার।

স্কুল পাশের পর থেকেই আয়ুষ্মান-তাহিরা ডেটিং শুরু করেন। দুজনেই পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতার ‍উপর স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তারপর একটা থিয়েটার গ্রুপে যোগ দেন।

তাহিরা খুব তাড়াতাড়ি প্রতিষ্ঠিত হয়ে গিয়েছিলেন। তাহিরার নিজস্ব পিআর ফার্ম রয়েছে, পাঞ্জাবের রেডিও স্টেশনের প্রোগামিং হেডও হয়েছেন তিনি। কিন্তু আয়ুষ্মান তখনও লড়ে যাচ্ছেন প্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য। দুজনেরই পরিকল্পনা ছিল, পড়াশোনা শেষ করার পরই বিয়ে করার।

কিন্তু আয়ুষ্মানের কাছে হাত খরচ ছাড়া আর কিছুই ছিল না তখন। কোনোক্রমে হাত খরচটুকু জোগাড় করতেন তিনি। তার উপর তার তীব্র অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছা। এসব দেখে এক সময় তাহিরার মনে হয়েছিল, কোনোদিনই তাদের বিয়ে সম্ভব নয়। কারণ তার বাড়িতে কোনোদিন মেনে নেবে না।

কিন্তু তাই বলে কি পিছিয়ে আসা যায়! এতদিনের ভালোবাসাকে ভুলে যাওয়া যায়! ওই অবস্থাতেই ২০১১ সালে আয়ুষ্মানকে বিয়ে করেছিলেন তাহিরা। তারপর দীর্ঘদিন তারা ডিসট্যান্ট রিলেশনশিপে ছিলেন। কর্মসূত্রে তাহিরা ছিলেন পাঞ্জাবে আর আয়ুষ্মান মুম্বাইয়ে। ২০১২ সালে অভিষেক ছবি ‘ভিকি ডোনার’ করে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন আয়ুষ্মান। এরপরের জার্নিটা সকলেরই জানা।

মাত্র ২৭ বছর বয়সে আয়ুষ্মানের প্রথম সন্তান বিরাজবীরের জন্ম হয় ২০১২ সালে। তার দুবছর পর সংসারে নতুন অতিথি, তাহিরা-আয়ুষ্মানের মেয়ে, বরুষ্কা। স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে সুখী পরিবার আয়ুষ্মানের। তারপর ২০১৮ সালে আয়ুষ্মান-তাহিরার দাম্পত্যে অপ্রত্যাশিত আঘাত আসে। ব্রেস্ট ক্যানসার ধরা পড়ে তাহিরার।

সে সময় সকালে শুটিং, সিনেমার প্রচারে ব্যস্ত থাকতেন আয়ুষ্মান। রাতে হাসপাতালে যেতেন স্ত্রীর কাছে। সম্পর্কে অনেক টানাপড়েন গেছে তাদের। তা সত্ত্বেও দীর্ঘ দিন ধরে লালিত ভালোবাসা আজও অক্ষুণ্ণ আয়ুষ্মান-তাহিরার।