৮ উপজেলা পরিষদ ও ১২৩টি ইউপিতে ভোট ১৪ অক্টোবর | |

৮ উপজেলা পরিষদ ও ১২৩টি ইউপিতে ভোট ১৪ অক্টোবর

পঞ্চম উপজেলা পরিষদের ৮টি উপজেলায় সাধারণ নির্বাচন ও ইউনিয়ন পরিষদের ১৪টি ইউপিতে সাধারণ ও ১০৯ টি ইউপির উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) ইসি উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তফসিল ঘোষণা করা হয়।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ি উপজেলা ও ইউপিতে মানোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১২ সেপ্টেম্বর, বাছাই ১৫ সেপ্টেম্বর, প্রর্থিতা প্রত্যাহার ২২ সেপ্টেম্বর এবং ভোটগ্রহণ ১৪ আক্টোবর।

ইসির উপ-সচিব মো. আতিয়ার রহমান জানান, ৮টি উপজেলার মধ্যে শেরপুর সদর, বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ, ঝিনাইদহের কোটচাদপুর ও চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় ব্যালটে ভোট হবে। এছাড়া নেত্রকোনার আটপাড়া, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর, ঝিনাইদহ মহেশপুর ও নোয়াখালীর সাতকানিয়ায় ইলেক্টোনিক ভোটিং মেশিন ( ইভিএমে ) ভোট গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, উপজেলা পরিষদ ও ইউপিতে সকাল ৯টা থেকে ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ করা হবে। ভোটের জন্য ইসি সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

যে ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচন হবে সে গুলো হচ্ছে- রাশাহীর বাঘার, গড়গড়ি, বাজবাঘা, পুকুড়িয়া,মনিগ্রাম। বান্দরবন পার্বত্য জেলা সদরের নাইক্ষ্যৎছড়ি,ঘুমঘুম, সোনাইছড়ি। সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুরের হাবিবুল্লাহনগর, পোরজানা, ফেনীর রামনগর দাগনভুঁঞা, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ, সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের মিরপুর ও চট্টগ্রামের বোয়ালখালীর কধুরখীল।

এছাড়া ১০৯ টি ইউপিতে চেয়ারম্যান, সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য পদে উপ নির্বাচন রয়েছে ১৪ অক্টোবর।

ইসি কর্মকর্তরা জানান, চলতি বছর পাঁচ ধাপে সাড়ে ৪০০ বেশি উপজেলায় ভোট করে ইসি। এসব ভোটে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টিসহ অনেক দল অংশ নিলেও বিএনপি অংশগ্রহণ করেনি। পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন গত ১০ মার্চ শুরু হয়। এরপর দ্বিতীয় ধাপে ১৮ মার্চ, তৃতীয় ধাপে ২৪ মার্চ, চতুর্থ ধাপে ৩১ মার্চ এবং ১৮ জুন শেষ ধাপের ভোটগ্রহণ করে নির্বাচন কমিশন। বেশিরভাগ উপজেলা ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রাথী জয়ী হন।

জানা যায়, বাংলাদেশে বর্তমানে ৪৯২টি উপজেলা পরিষদ রয়েছে। এর মধ্যে সাড়ে ৪০০ উপজেলায় ভোট করা হয়েছে । বিভিন্ন সমস্যার কারণে বাকি উপজেলায় ভোট হয়নি সে সময় । এর আগে ২০১৪ সালের মার্চ- মে মাসে ছয় ধাপে এর অধিকাংশগুলোতে ভোট হয়েছিল। আইনে মেয়াদ শেষের পূর্ববর্তী ১৮০ দিনের মধ্যে ভোট করার বাধ্যবাধকতা থাকায় এ নির্বাচন করতে হচ্ছে। ১৯৮৫ সালে উপজেলা পরিষদ চালু হওয়ার পর ১৯৯০ ও ২০০৯ সালে এক দিনেই ভোট হয়েছিল। ২০১৪ সালে ছয় ধাপে ভোট করেছিলেন তৎকালীন ইসি।