টেকনাফে গুলিতে রোহিঙ্গাসহ দুই ‘মাদক কারবারি’ নিহত | |

টেকনাফে গুলিতে রোহিঙ্গাসহ দুই ‘মাদক কারবারি’ নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় বিজিবির সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক রোহিঙ্গা নাগরিকসহ দুইজন নিহত হয়েছেন, যারা মাদক কারবারি বলে ভাষ্য বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীটির।

সোমবার ভোরে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের মৌলভীবাজার নাফ নদীর ২নং স্লুইচগেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- টেকনাফের হোয়াইক্যং নয়াবাজার সাতঘরিয়াপাড়ার জলিল আহমদের ছেলে দেলোয়ার হোসেন এবং কক্সবাজারে উখিয়া কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হায়দার শরীফের ছেলে নুরুল ইসলাম ।

টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়ান অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান জানান, টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের মৌলভীবাজার ২ নং নাফ-নদীর স্লুইচগেট এলাকা হয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি চালান আসার খবর পায় বিজিবি। এজন্য খারাংখালীর বিজিবি টহলরতসদস্যরা একই স্থানে অবস্থান নেন।

ইয়াবা কারবারিরা নৌকা দিয়ে বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করার সময় বিজিবি সদস্যরা ধাওয়া দেয়। এক পর্যায়ে পাচারকারীরা বিজিবি উপর গুলিবর্ষণ করে বিজিবিও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। পরে সেখানে তল্লাশি চালিয়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুইজনকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় চার বিজিবি সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২০ হাজার পিস ইয়াবা, দুটি দেশীয় অস্ত্র, চার রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও দুটি ধারালো কিরিচ। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনি প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান বিজিবির ওই কমর্কতা।