বালিশ কান্ডে ৩৬ কোটি টাকার গরমিল | |

বালিশ কান্ডে ৩৬ কোটি টাকার গরমিল

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আবাসিক প্রকল্পে ৩৬ কোটি টাকার বেশি লুটপাটের প্রমাণ মিলেছে। হাইকোর্ট জমা দেয়া গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটি দুটি প্রতিবেদনে ওঠে এসেছে এ তথ্য।

সোমবার আবাসন প্রকল্পের সরঞ্জাম কেনায় দুর্নীতির বিষয়ে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটি দুটি রিপোর্ট হাইকোর্ট জমা দেয়।

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন-২ অনুবিভাগ) মো. মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন সাত সদস্যের কমিটি এ প্রতিবেদন তৈরি করে।

রিপোর্টে বলা হয়, চারটি ভবনের আসবাবপত্র ও ইলেক্ট্রিক সরঞ্জাম সরবরাহ কাজের চুক্তি মূল্য ১শ ১৩ কোটি ৬২ লাখ ৯৪ হাজার টাকা। অথচ মালামাল সরবরাহ করা হয়েছে ৭৭ কোটি ২২ লাখ ৮৫ হাজার টাকার। অর্থাৎ চুক্তি মূল্য সরবরাহ করা মালামালের প্রকৃত মূল্যের চেয়ে ৩৬ কোটি ৪০ লাখ ৯ হাজার টাকা বেশি। তাই এই বাড়তি পরিশোধিত অর্থ সরকারি কোষাগারে ফেরত আনার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

একই সাথে রিপোর্টে আলাচিত বালিশকাণ্ডের নায়ক পাবনা গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদুল আলমসহ ৫০ জনের বিরুদ্ধে শাস্তির সুপারিশ করা হয়েছে।