বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ভারতে বিটিভির অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচারিত হবে | |

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ভারতে বিটিভির অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচারিত হবে

শের প্রথম যোগাযোগ স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ (বিএস-১) ব্যবহার করে ভারতে বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি)-এর অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচার করা হবে। গতকাল ভারতীয় দূরদর্শনের সাথে বিএস-১ এর সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে।
কর্মকর্তারা বলেন, কারিগরি উন্নয়নের মাধ্যমে ভারতে দেশটির রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন টিভি চ্যানেল দূরদর্শনে ডিটিএইচ (ডাইরেক্ট-টু-হোম) এ বিটিভির অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচারের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। দেশটির কর্মকর্তারা এ কথা জানান।
বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লীতে বিটিভি’র মহাপরিচালক এসএম হারুন-অর-রশীদ বলেন, ‘ইতোমধ্যে সকল আনুষ্ঠানিক ও কারিগরি বিষয় চূড়ান্ত হয়েছে। এখন আমরা যে কোন সময় ভারতে বিটিভি’র অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচারের জন্য পূর্ণাঙ্গভাবে প্রস্তুত রয়েছি।’
বাসস-এর সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, বিটিভি ও দূরদর্শনের কারিগরী দলগুলো বিএস-১ এর এলাইনমেন্ট ফিক্সিংয়ের মাধ্যমে দূরদর্শনে ডাউন লিংকিং করে গতকাল সন্ধ্যায় বিটিভি দেখেছেন।
হারুন বলেন, ‘আমরা অত্যন্ত খুশি যে বিটিভিতে সম্প্রচারিত দূরদর্শনের অনুষ্ঠানের ছবির মান খুবই উন্নত। আমরা অত্যন্ত ভাল সিগনাল পাচ্ছি।’
হারুন তিন সদস্য বিশিষ্ট বিটিভি’র কারিগরি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। দূরদর্শনের সাথে কারিগরি বিষয় চূড়ান্ত করতে তিনি দিল্লী অবস্থান করছেন।
গত দুই দিন, বিটিভি’র ডিজি ও তার দল দূরদর্শনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সম্প্রচারের কারিগরি বিষয় নিয়ে ধারাবাহিক আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন।
এক প্রশ্নের জবাবে হারুন বলেন, দেশে ফিরে ভারতে বিটিভি’র অনুষ্ঠানমালা আনুষ্ঠানিকভাবে সম্প্রচারের দিনক্ষণ চূড়ান্ত করতে তিনি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন।
তিনি বলেন, ‘আমরা সম্পূর্ণরূপে প্রস্তুত রয়েছি। যে কোন সময়ে সম্প্রচারে যেতে পারি।’
বিটিভি’র মহাপরিচালক আরো বলেন, বাংলাদেশী বেসরকারি চ্যানেলগুলোও প্রতিবেশী দেশটিতে তাদের টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচার করায় এই সুযোগ কাজে লাগাতে পারবে ।
প্রাথমিকভাবে, ভারতের দর্শকরা বিটিভি ওয়ার্ল্ড এর অনুষ্ঠানমালা দেখতে পারবেন।
ভারতের নতুন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ১৯ জুন এই চুক্তিটির অনুমোদন দেয়ার আগে ৭ মে এ ব্যাপারে উভয়পক্ষের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে।
কর্মকর্তারা জানান, বাংলাদেশ বেতারের অনুষ্ঠানমালা ভারতে সম্প্রচারের লক্ষ্যে যুগপৎ আরেকটি চুক্তি হয়েছে।
বাংলাদেশে সাতটি বেসারকারি টেলিভিশন কেন্দ্র ও রাষ্ট্র পরিচালিত বাংলাদেশ টেলিভিশনের তিনটি চ্যানেল বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট ব্যবহারের মাধ্যমে অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচার শুরু করেছে।
ফরাসী নির্মাতা থ্যালেস অ্যালেনিয়া স্পেস ১২ মে আমেরিকার ফ্লোরিডা থেকে পরিকল্পনা অনুযায়ী দুই হাজার ৭৬৫ কোটি টাকা মূল্যে বিএস-১ উৎক্ষেপণ করেন।
১১৯.১ পূর্ব দ্রাঘিমার ভূস্থিত স্লটে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু-১ কৃত্রিম উপগ্রহটি সার্ক সদস্য রাষ্ট্রসমূহ ছাড়াও ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইনস, মিয়ানমার, তাজিকিস্তান, কিরগিজস্তান, উজবেকস্তান, তুর্কেস্তান ও কাজাখস্তানের কিছু অংশ কাভার করে।
ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইনস, ভারত, শ্রীলংকা নেপাল ও ভূটানে সবচেয়ে শক্তিশালী কাভারেজ থাকায় এ ছয়টি দেশকে প্রাথমিকভাবে বাণিজ্যের জন্য বেছে নেয়া হয়েছে।— বাসস