জনকল্যাণ ও উন্নয়নমুখী প্রশাসন গড়ে তুলতে সরকার বহুমুখী কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে : রাষ্ট্রপতি | |

জনকল্যাণ ও উন্নয়নমুখী প্রশাসন গড়ে তুলতে সরকার বহুমুখী কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে : রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, সরকার ঔপনিবেশিক ভাবধারা থেকে বেরিয়ে একটি জনকল্যাণ ও উন্নয়নমুখী প্রশাসন গড়ে তোলার লক্ষ্যে বহুমুখী কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।
জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে আজ এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন।
‘জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস ২০১৯’ উপলক্ষে প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত সব কর্মচারীকে রাষ্ট্রপতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।
তিনি বলেন, জনগণের দোরগোড়ায় স্বল্প ব্যয় ও অল্প সময়ে সরকারি সেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে নতুন নতুন উদ্ভাবনী ধারণাকে কাজে লাগিয়ে সেবা সহজীকরণের স্বীকৃতিস্বরূপ ‘জনপ্রশাসন পদক ২০১৯’ প্রদান একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। এ পদক প্রদান প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত সকল পর্যায়ের কর্মচারীদের জনগণকে উন্নত সেবা প্রদানে আরো উৎসাহিত করবে।
রাষ্ট্রপতি বলেন, সরকারি কার্যসম্পাদনে প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীবৃন্দ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকেন। কর্মক্ষেত্রে সকল পর্যায়ে নতুন নতুন উদ্ভাবন এবং প্রযুক্তির প্রয়োগকে উৎসাহিত করা হচ্ছে। তৃণমূল পর্যায়ে সর্বোত্তম সেবা পৌঁছাতে জনগণের প্রত্যাশা অনুযায়ী উদ্ভাবনী ধারণাসমূহ ও প্রযুক্তির সঠিক প্রয়োগ খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ‘রূপকল্প ২০২১’ এবং ‘রূপকল্প ২০৪১’ বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশকে আধুনিক ও উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে নিরলস প্রয়াস চালাচ্ছে। ২১০০ সালের মধ্যে ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ পরিণত হবে একটি নিরাপদ ব-দ্বীপে। এসব লক্ষ্য অর্জনে প্রয়োজন দক্ষ, তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর কার্যকর জনপ্রশাসন।
আবদুল হামিদ আশা প্রকাশ করেন, ভালো কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ জনপ্রশাসন পদক প্রদানের উদ্যোগ প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত কর্মচারীদের উৎসাহিত ও অনুপ্রাণিত করবে। এতে পদকপ্রাপ্তদের পথ অনুসরণ করে অন্যান্য কর্মচারীরাও জনকল্যাণে উদ্ভাবনী কাজে এগিয়ে আসবেন এবং রাষ্ট্রের সার্বিক উন্নয়নে কার্যকর ভূমিকা রাখবেন।