আইএস নয়, বোমা রেখেছে স্থানীয় জঙ্গি গোষ্ঠী : পুলিশ

ঢাকায় পুলিশের দুটি চেক পয়েন্টের পাশে বোমা পুঁতে রাখার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)। তবে তা উড়িয়ে দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বলছে স্থানীয় জঙ্গি গোষ্ঠীই এমনটি ঘটিয়েছে।

বৃহস্পতিবার জিহাদি কার্যক্রম পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা সাইট ইন্টেলিজেন্সের মাধ্যমে তারা এ দায় স্বীকার করে।

রাজধানীর খামারবাড়ি ও পল্টনে পুলিশ চেকপোস্টের সামনে বোমা এলাকা থেকে অবিস্ফোরিত অবস্থায় এগুলো উদ্ধার করে নিষ্ক্রিয় করে পুলিশ।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার পুলিশ সদর দফতরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) সোহেল রানা বলেন, ‘বাংলাদেশে আইএসের কোনো অস্ত্বিত্ব নেই। অনেক সময় স্থানীয় গোষ্ঠী আইএসের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য এ ধরনের ঘটনা ঘটায়। বোমা উদ্ধারের ঘটনার তদন্ত চলছে। প্রাথমিকভাবে আমাদের ধারণা, স্থানীয় কোনো গোষ্ঠী জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির জন্য এমনটি করতে পারে। তদন্ত প্রাথমিক পর্যায়ে। তদন্ত শেষে কে বা কারা কী উদ্দেশ্যে বোমা রেখেছে তা বলা যাবে।’

এ বিষয়ে বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেছিলেন, ‘আমাদের স্থানীয় জঙ্গি গোষ্ঠী, যারা ইতোপূর্বে এখানে কাজ করেছে, তারা হয়তো সক্রিয় থাকলেও থাকতে পারে। তবে আমরা তদন্ত করছি। বিষয়টি পুরোপুরি দেখে যখন বলার মতো হবে, তখন অবশ্যই আমরা বিস্তারিত বলব।’

গত ২৪ জুলাই রাত ১২টার দিকে খামারবাড়ি মোড়ের পুলিশ চেকপোস্টের কাছে থেকে এই বোমা সদৃশ বস্তুটি উদ্ধার করা হয়। সেখানকার মেট্রোরেল কর্মীরা সন্দেহজনক এই বস্তুটি দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দুটি বোমারই ‘নিয়ন্ত্রিত বিস্ফোরণ’ ঘটান বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলের সদস্যরা।