অস্ট্রেলিয়া দলে আজ তিন রদবদল! | |

অস্ট্রেলিয়া দলে আজ তিন রদবদল!

রদবদলের তিন গল্প আপাতত ছড়িয়ে রয়েছে বার্মিংহামে! এক, উসমান খাজার বদলে টিমে আসছেন পিটার হ্যান্ডসকম্ব। দুই, খাজার পরিবর্তে তিন নম্বরে ব্যাট করবেন স্টিভেন স্মিথ। তিন, ব্যাটে ও বলে ধারাবাহিক ব্যর্থতার পর টিমে বাদ পড়তে চলেছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে আজ বিকালে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ম্যাচে মাঠে নামবে অস্ট্রেলিয়া। চোট আঘাতের সাম্প্রতিক খবরাখবর ধরলে অজিরা বেশ চাপে। আবার অজি টিমের শেষ গল্প কিন্তু এও বলছে, ফাঁকফোকড় বুজিয়ে ইংল্যান্ড ম্যাচে নামছে অ্যারোন ফিঞ্চের টিম।

লিগ পর্বের ম্যাচে ইংল্যান্ডকে হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। অতীত মাথায় রেখে সেমিফাইনাল খেলতে নামছেন না অজিরা। বার্মিংহামের এজবাস্টনের কথা ধরলে ২০০১ সাল থেকে একটাও টেস্ট এখানে জিততে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। ১৯৯৩ সালের পর কোনও ওয়ানডে ম্যাচ জেতেনি।

ফিঞ্চ বলেছেনন, ‘যা পিছনে পড়ে থাকে, তা কখনও বদলানো যায় না। কিন্তু ভবিষ্যৎ পাল্টানো যায়। আমরা এই মাঠে নামব ইতিহাস বদলানোর জন্য।’ একই সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন, ‘ইংল্যান্ড এই মাঠে অসাধারণ ক্রিকেট খেলছে। বিশেষ করে ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচটাতে ওরা হারানো বিশ্বাসটা ফিরে পেয়েছে।’

ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচে যা হয়েছে, অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড ম্যাচেও তাই হতে পারে। মেঘ-বৃষ্টি তাড়া করবে আজও। ইংল্যান্ডের আবহাওয়া দপ্তরের কর্মকর্তারা বলছেন, ‘রোদ-মেঘ-বৃষ্টি মিলে মিশে থাকবে। দুপুরের পর ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।’ যদি ম্যাচ না হয়, এ ক্ষেত্রেও পরের দিন গড়াবে। তবে শুক্রবার ও শনিবার বৃষ্টির পূর্বাভাস নেই।

চোটের কারণে শন মার্শ, উসমান খাজারা ছিটকে যাওয়ার পাশাপাশি চিন্তা ছিল মার্কাস স্টয়নিসকে নিয়েও। তিনি অবশ্য ফিট হয়ে গিয়েছেন। কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার যাঁকে নিয়ে বলেছেন, ‘নেটে ও চমৎকার প্র্যাক্টিস করেছে। সেরাটাই দিয়েছে। এটুকু বলতে পারি, ও পুরোপুরি ফিট।’

এরই মধ্যে আবার মার্ক ওয়াহর মতো সাবেক ক্রিকেটার স্মিথের ব্যাটে বড় রান দেখতে চাইছেন। ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যারোন ফিঞ্চরা রানের মধ্যে থাকলেও স্মিথের ব্যাট থেকে এখনও সেঞ্চুরি আসেনি। মার্ক ওয়াহ বলেছেন, ‘ক্রিজে যখন ব্যাট করতে যাচ্ছে, তখন স্মিথের মধ্যে হতাশা দেখতে পাচ্ছি। বড় রান না পেলে ব্যাটসম্যানদের মধ্যে যেটা হয়। এ টুকু বলতে পারি, যতক্ষণ না ও একটা বড় রান করছে, একটা সেঞ্চুরি পাচ্ছে, ততক্ষণ ওর স্বাভাবিক ক্রিকেটটা দেখতে পাওয়া যাবে না।’

একই সঙ্গে মার্ক ওয়াহ নিজের কলামে লিখেছেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ৭৩ রানটাই স্মিথের সেরা ইনিংস এই বিশ্বকাপে। আমার মনে হয়, তিন নম্বরে ব্যাট করা উচিত ওর। যত বেশি সময় ও ক্রিজে কাটাতে পারবে, ততই ও নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ পাবে।’

নিজেদের নিয়ে ভাবনার পাশাপাশি ইংলিশ ওপেনারদের নিয়েও চলছে কাটাছেঁড়া। ক্যাপ্টেন ফিঞ্চ বলছেনও, ‘ওদের ওপেনিং জুটিটা মারাত্মক ফর্মে আছে। দীর্ঘ সময় একসঙ্গে ক্রিজে কাটাচ্ছে। টিমটার ভিত গড়ে দিচ্ছে।’

মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্সরা কিন্তু গতির ঝড় বইয়ে দেওয়ার জন্য তৈরি করেছেন নিজেদের।