সদরঘাটে নৌকাডুবি : নিখোঁজ দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার

রাজধানীর সদরঘাটে পাঁচ যাত্রীসহ নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার (২১ জুন) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে ডিঙ্গি নৌকা করে ওয়াইজঘাট থেকে নদীর ওপারে তিন সন্তান, শ্যালককে সঙ্গে নিয়ে রওয়ানা দেন বাবুল ফরাজি। সকাল ৬টা ৪০ মিনিটের দিকে লঞ্চের ঢেউয়ে নৌকাটি ডুবে যায়। খবর পেয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে ফায়ার সার্ভিস, নৌ পুলিশ ও বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড।

পরে সকাল সাড়ে ১০টায় তিনজনকে জীবিত উদ্ধারের কথা জানায় নৌ পুলিশ ও কোস্টগার্ড। তারা হলেন- বাবুল ফরাজি (৪২), শামিম মৃধা (৩০) ও ছয় মাসের একটি বাচ্চা। সে সময় ও নিখোঁজ ছিল দুই শিশু মেশকাত (১২) এবং নুসরাত (৫)।

সর্বশেষ বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে মেশকাতের এবং সোয়া ১২টার দিকে নুসরাতের মরদেহ উদ্ধার করে কোস্ট গার্ডের ডুবুরি দল।

sadarghat1

কোস্ট গার্ড সদর দফতরের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য কাজী ফয়সাল হোসেন ও মেরাজ আহমেদ  জানান, ডিঙ্গি নৌকা যেখানে ডুবেছিল তার পাশ থেকেই মেশকাত ও নুসরাতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সদরঘাট নৌ পুলিশ থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জাগো নিউজকে বলেন, সকাল সাড়ে ৬টার দিকে ওয়াইজঘাট থেকে নদীর ওপারে যেতে যাত্রীবাহী একটি ডিঙ্গি নৌকা রওয়ানা দেয়। এ সময় লঞ্চের ঢেউয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুই শিশুসহ পাঁচ যাত্রী নিয়ে নৌকাটি আনুমানিক ৬টা ৪০ মিনিটের দিকে ডুবে যায়। খবর পেয়ে নৌ পুলিশের চৌকস টিম কাজ শুরু করে।

ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের ডিউটি অফিসার রাসেল শিকদার জানান, সকাল ৭টায় নৌ ডুবির খবরে দুটি ডুবুরি দলসহ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট পাঠানো হয়।