মন্ত্রিত্বের গরম আমায় ছোঁয় না: আইনমন্ত্রী

দেশ ও জনগণের জন্য কাজ করছেন দাবি করে আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, তারা কোনো মানবাধিকার লঙ্ঘন কিংবা ব্যক্তিস্বার্থে মন্ত্রিত্ব ভোগ করেন না। মন্ত্রিত্বের গরম তাকে ছোঁয় না।

আখাউড়া উপজেলা মিলনায়তনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এমন দাবি করেন মন্ত্রী। আজ বৃহস্পতিবার বিকালে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানাতে কসবা থেকে আখাউড়ায় আসেন এই আসনের সংসদ সদস্য আনিসুল হক।

দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘন ও গণতন্ত্র নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘মানবাধিকার লঙ্ঘন বা গণতন্ত্রের কোনো ব্যাঘাত ঘটছে এমন নজির আমাদের নাই।’

গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনকে উদ্দেশ করে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘ওনার জনগণের সঙ্গে কোনো সম্পৃক্ততা নেই। জনগণের সঙ্গে কথা বলে দাবিদাওয়া করতে হয়। ঢাকার গুলশান আর বনানীতে বসে রাজনীতি করার দিন শেষ।’

মন্ত্রিত্বকে নিজের ব্যক্তিগত স্বার্থে ব্যবহার করছেন না জানিয়ে মন্ত্রী উপস্থিত জনগণের উদ্দেশে বলেন, `মন্ত্রিত্ব পেয়ে আমি মোটা হয়ে যাই নাই। মন্ত্রিত্বের গরম আমার গায়ে লাগে না। আমি যেমন আছি তেমনি থাকব। আমার ব্যবহারের কোনো পরিবর্তন হবে না।’

‘জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা সবাই মিলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ব।’ বলেন মন্ত্রী।

নিজের সংসদীয় আসনের উন্নয়ন সম্পর্কে আনিসুল হক জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার এলজিআরডির কর্মকর্তাদের উন্নয়নমূলক কাজ আরো গতিশীল করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। গত ৫ বছরে ১ হাজার ৭০০ জনের বেশি লোককে চাকরি দিয়েছেন এবং গত ৫ মাসে ৭০ জনকে চাকরি দিয়েছেন বলে জানান মন্ত্রী।

আখাউড়ার পাশের উপজেলা বিজয়নগরের আসন্ন উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীকে যেকোনো মূল্যে বিজয়ী করার জন্য নেতাকর্মীদের আহ্বান জানান তিনি।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ জয়নাল আবেদীন, পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম, ইউএনও তাহমিনা আক্তার রেইনা, ওসি নিজামী, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাভলু ও সাধারণ সম্পাদক নয়ন প্রমুখ।