শ্রীলঙ্কায় মসজিদে হামলা, কারফিউ জারি | |

শ্রীলঙ্কায় মসজিদে হামলা, কারফিউ জারি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিতর্কিত পোস্টের জের ধরে শ্রীলঙ্কায় মসজিদ ও স্থানীয় মুসলিমদের দোকানপাটে হামলা চালিয়েছে সাধারণ জনগণ। দেশটির পশ্চিম উপকূলীয় শহর চিলাওতে এই ঘটনা ঘটেছে। এরপরই ওই অঞ্চলে কারফিউ জারি করে প্রশাসন। এছাড়া সাময়িকভাবে ফেসবুক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, রবিবার এ ঘটনা ঘটেছে। দেশটির প্রশাসন এ ঘটনার পর সেখানে কারফিউ জারি করেছে। শ্রীলঙ্কা পুলিশের মুখপাত্র রুয়ান গুনাসেকেরা জানিয়েছেন, উত্তেজনাকর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চিলাউ পুলিশ এলাকায় সোমবার ভোর ৬টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করা হয়। ফেসবুকে পোস্টের লেখক আব্দুল হামিদ মোহাম্মদ হাসমারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এসব ঘটনার পর সোমবার ফেইসবুক, হোয়াটসঅ্যাপসহ কয়েকটি সামাজিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ম্যাসেজিং অ্যাপ বন্ধ করে দেয় শ্রীলঙ্কার কর্তৃপক্ষ। শ্রীলঙ্কার সরকারি তথ্য বিভাগের মহাপরিচালক নালাকা কালুউয়িবা সোমবার রয়টার্সকে বলেছেন, ‘দেশে শান্তি বজায় রাখার জন্য ফের সাময়িকভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ রাখা হয়েছে’।

দেশটির কয়েকটি সম্প্রদায় জানিয়েছে, আসন্ন জঙ্গি হামলার সতর্কতা পেয়েও সরকার সঠিক পদক্ষেপ নিতে পারেনি এবং হামলার পর তারা সম্ভাব্য সব জঙ্গিকে ধরতে পারেনি, এমন পরিস্থিতিতে শঙ্কিত হয়ে আছেন তারা।

শ্রীলঙ্কার বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনের দাবি, বিভিন্ন স্থান থেকে মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর হয়রানির শিকার হওয়ার কয়েক ডজন অভিযোগ পেয়েছেন তারা।

তিন সপ্তাহ আগে শ্রীলঙ্কার ইসলামপন্থি আত্মঘাতী বোমারুরা চারটি হোটেল ও তিনটি গির্জায় হামলা চালিয়ে ২৫৩ জনকে হত্যা করে। তারপর থেকে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজনকে হেনেস্থা করার বহু অভিযোগ পেয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির মুসলিম গোষ্ঠীগুলো।