ডিজিটাল পদ্ধতিতে ভাতা পাবেন মুক্তিযোদ্ধারা | |

ডিজিটাল পদ্ধতিতে ভাতা পাবেন মুক্তিযোদ্ধারা

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, আগামি অর্থবছর থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধারা তাদের মাসিক সম্মানী ভাতা পাবেন ইলেকট্রনিক (ডিজিটাল) পদ্ধতিতে। এ লক্ষ্যে তাদের স্মার্ট কার্ডও দেয়া হবে।

বুধবার পরিবহন পুল ভবনের কাছে সচিবালয় লিংক রোডে সপ্তাহব্যাপী সেবা সপ্তাহের উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব এস এম আরিফ উর রহমানসহ পদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা সরাসরি নিজ নিজ ব্যাংক হিসাবে জমা প্রদানের লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার। আগামী অর্থবছর থেকেই মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল কার্ড প্রদান এবং ইলেকট্রনিক (জিটুপি) পদ্ধতিতে সম্মানী ভাতা প্রদানের ব্যবস্থা করা সম্ভব হবে। সফল রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার ব্যবস্থাসহ সমগ্র দেশটিকে ডিজিটাল করার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। এরই অংশ হিসেবে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সেবা সহজে ও ঝামেলামুক্তভাবে প্রদানের লক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্থ সংস্থাগুলোর কার্যক্রমও পরিপূর্ণ ডিজিটাল পদ্ধতিতে করার লক্ষ্যে কাজ করছে মন্ত্রণালয়।’

আ ক ম মোজাম্মেল হক জানান, ৮ থেকে ১৪ মে পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে সেবা সপ্তাহ-২০১৯ পালন করবে। সেবা সপ্তাহে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্থ সব দফতর- সংস্থার মাধ্যমে বিশেষ ব্যবস্থায় সেবা দেয়া হবে।

তিনি জানান, এ জন্য মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্থ দফতর-সংস্থার সব শাখাকে প্রস্তুত রাখা হবে। সেবা প্রত্যাশীদের সহজে ও দ্রুততার সঙ্গে সেবা দেয়া হবে। অতি দ্রুত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল সনদ ও পরিচয়পত্র দেয়ার লক্ষ্যে কাজ করছে মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রী বলেন, এছাড়া বিনামূল্যে অসুস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসাসেবা দিচ্ছে সরকার। র‌্যালিটি সচিবালয় লিংকরোড থেকে শুরু হয়ে জিপিও মোড় হয়ে আবার মন্ত্রণালয়ের সামনে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে বীর মুক্তিযোদ্ধা, সরকারি কর্মচারী ও গণমাধ্যমকর্মীরা অংশ নেন।