গৃহায়ণ ও গণপূর্ত খাতের দুর্নীতি সম্পর্কে জানেন শ ম রেজাউল করিম | |

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত খাতের দুর্নীতি সম্পর্কে জানেন শ ম রেজাউল করিম

দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে অনিয়মের অনেক অভিযোগ পেয়েছেন উল্লেখ করে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, এটাকে আমার কাছে মনে হয়েছে নাগরিকের সেবা, নাকি নাগরিকের দুঃসহ অবস্থার ভেতরে থাকা।

মন্ত্রী বলেন, দেশের মালিক জনগণ। সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৭-এ ও বলা হয়েছে এমনটাই। কাজেই মালিকরা যেন কর্মচারীদের দ্বারা হেনস্তার শিকার না হয় সে জন্য কাজ করে যাচ্ছি।

সম্প্রতি একটি বেসকরারি টেলিভিশনের ‘মন্ত্রী সাহেব’ অনুষ্ঠানে উপস্থাপকের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

নিজের সফলতার দিকে ইঙ্গিত করে মন্ত্রী বলেন, আগে একটা প্ল্যান পাশ করতে ১৬টি দপ্তরে যাওয়া লাগত। স্বাধীন বাংলাদেশে দায়িত্ব গ্রহণের পর আমি প্রথম ১২টি দপ্তর বাদ দিয়ে দিয়েছি। মাত্র ৪টি দপ্তরে আপনাকে যেতে হবে। তাও আপনাকে যেতে হবে না, শুধু ফাইল যাবে।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ব্যক্তিগতভাবে আমার পরিবর থেকে যে শিক্ষা সেটা হলো জীবনে খুব একটা অহংকার বা ভাবের ভেতর থাকার মধ্যে কর্তৃত্ব নেই। আমার মতে সাধারণ থাকাটাই সুখ। আর দেশটা জনগণের। জনগণকে অবশ্যই সকল কাজের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি উল্লেখ করে বলেন, আমি সাধারণ মানুষের মধ্যে থাকাটাকে গৌরববোধ করি।

প্রসঙ্গত, শ ম রেজাউল করিম পিরোজপুর-১ আসন থেকে ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান।