সিএমএম আদালতে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট গ্রেপ্তার | |

সিএমএম আদালতে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট গ্রেপ্তার

ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে মামলায় তদবির করতে এসে একজন ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট গ্রেপ্তার হয়েছেন।

গ্রেপ্তারকৃত ওই ব্যক্তির নাম জুয়েল রানা। তিনি টাঙ্গাইল সদর থানার বিশাদ বেটকা মুন্সিপাড়ার আব্দুর রউফের ছেলে।

রবিবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) জাহিদুল কবিরের খাসকামরায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, রবিবার সকালে জুয়েল রানা নামে এক ব্যক্তি নিজেকে ম্যাজিস্ট্রেট (সহকারী জজ) পরিচয়ে সিএমএম জাহিদুল কবিরের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের জন্য আসেন। ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয় দেয়ায় সিএমএম তাকে খাস কামরায় সাক্ষাৎ দেন। সাক্ষাতের সময় খাসকামরায় তিনি নিজেকে ১২তম জুডিশিয়াল সার্ভিস পরীক্ষায় নিয়োগের সুপারিশপ্রাপ্ত বলে জানান। এক পর্যায়ে তিনি একটি মামলার একজন আসামি জামিনের বিষয়ে কথা বলতে শুরু করেন। সেখানে ওই ব্যক্তি ‘সারেন্ডারের’ স্থানে ভুল ইংরেজি শব্দ ‘স্যালেন্ডার’ ব্যবহার করেন। এতে সন্দেহ হয় সিএমএম জাহিদুল কবিরের। তখন সিএমএম ওই ব্যক্তিকে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করছেন জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কথা বলেন। এরপর ১২তম জুডিশিয়াল সার্ভিসের পরীক্ষার রোল জানতে চাইলে তিনি পকেট থেকে একটি পরীক্ষার প্রবেশপত্র বের করে দেন। যেখানে রোল নম্বর ছিল ৮২০৩। ওই রোল নম্বর যাচাই করে দেখা যায়, ওই রোল নম্বরের পরীক্ষার্থীর নাম ছিল আব্দুল্লাহ আল নোমান। তিনি নর্দান ইউনিভারসিটির ছাত্র। বাড়ি কক্সবাজার জেলায়। পরে জেরার এক পর্যায়ে তিনি স্বীকার করেন যে, প্রতারণার জন্যই আব্দুল্লাহ আল নোমানের রোল নম্বর ব্যবহার করে সেখানে নিজের নাম, পিতার নাম ও ঠিকানা বসিয়ে ব্যবহার করছেন।

ওই ঘটনার পর সিএমএম আদালত থেকে প্রতারক জুয়েল রানাকে রাজধানীর কোতয়ালী থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছেন।

এ সম্পর্কে সিএমএম আদালতের নাজির সাকিলুর রহমান জানিয়েছেন, পুলিশ ভুয়া প্রবেশপত্র জব্দ করেছেন এবং পুলিশ বাদী হয়েই একটি মামলা প্রস্তুতি চলছে।