বৃষ্টি মাথায় দুই সিটিতে ভোট চলছে | |

বৃষ্টি মাথায় দুই সিটিতে ভোট চলছে

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচন এবং দুই সিটির সম্প্রসারিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদের ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল আটটায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে বিকাল চারটা পর্যন্ত।

রাত থেকে বৃষ্টির কারণে সকালে ভোটারের লাইনে কিছুটা ভাটা দেখা গেছে। তারপরেও কিছু ভোটার বৃষ্টি মাথায় নিয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিচ্ছেন।

গত দুই দিন ধরে ঢাকায় বৃষ্টি হচ্ছে। গতকাল রাতেও ঢাকায় বৃষ্টি হয়। ভোরে বৃষ্টি কিছুটা থামলেও আকাশে মেঘের ঘটঘটা ছিল। এরপর আবারও শুরু হয় ঝিরঝির বৃষ্টি। এর মধ্যেই কিছু ভোটারকে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোটের জন্য অপেক্ষা করতে দেখা গেছে।

নির্বাচন উপলক্ষে বুধবার মেয়র পদে ব্যালট পেপার বিতরণ করা হয়। আরও বৃহস্পতিবার সকালে কেন্দ্রে কেন্দ্রে উত্তরের সব ওয়ার্ডে মেয়র ও নতুন ১৮ ওয়ার্ডে মেয়রসহ কাউন্সিলরের এবং দক্ষিণের ১৮ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ব্যালট পেপার পাঠানো হয়।

নির্বাচন উপলক্ষে ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি ও আনসার সদস্যরা মাঠে নেমেছেন। স্টাইকিং ফোর্সের পাশাপাশি সাধারণ ভোটকেন্দ্রে ২২ জন এবং গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ২৪ জন করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকবে।

ঢাকা উত্তরে পাঁচ জন মেয়র প্রার্থী হলেও মূলত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে আওয়ামী লীগ থেকে নৌকা প্রতীকে আতিকুল ইসলাম ও জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকে কণ্ঠশিল্পী শাফিন আহমেদের মধ্যে।

ভোট উপলক্ষে মঙ্গলবার মধ্য রাত থেকে ১ মার্চ সকাল ৬টা পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট এলাকায় মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ইসি। এ ছাড়া আজ ২৮ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত বাস, ট্রাক, মাইক্রোবাস, জিপ, টেম্পু চলাচল নিয়ন্ত্রণ হবে। প্রধান প্রধান সড়কে বাস চলাচল করবে।

এই সিটিতে প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে হতে যাওয়া মেয়র নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টি ছাড়া উল্লেখযোগ্য আর কোনো দল অংশ নেয়নি।

ডিএনসিসির নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীরা হলেন আওয়ামী লীগ থেকে আতিকুল ইসলাম, জাতীয় পার্টি থেকে শাফিন আহমেদ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি থেকে আনিসুর রহমান দেওয়ান, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক পার্টির শাহীন খান ও একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রহিম৷।  আর নতুন সংযুক্ত ১৫টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ১১৬ জন ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৪৫ জন প্রার্থী রয়েছেন।

ডিএসসিসির নতুন সংযুক্ত ১৫টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে সাধারণ ওয়ার্ডে ১২৫ জন ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৪৫ প্রার্থী আছেন।

এ ছাড়া ঢাকা উত্তরের ২১ নম্বর ওয়ার্ডের উপনির্বাচনে সাতজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আর নয় নম্বর সাধারণ আসনে একজন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

এবার নিবন্ধিত বেশির ভাগ রানৈতিক দল অংশ নেওয়ার মেয়র পদে এ নির্বাচনে তেমন প্রতিদ্বন্দ্বিতা বা উত্তাপ ছড়াবেনা আগের নির্বাচনের মত। তবে সম্প্রসারিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হতে পারে।

২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুতে মেয়র পদ শূন্য হয়। নির্বাচন কমিশন গত বছরের ২৬ জানুয়ারি মেয়র পদে উপনির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছিল। কিন্ত তার আগেই ওই বছরের ১৪ জানুয়ারি মেয়র পদে উপনির্বাচন ছয় মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দেয় হাইকোর্ট।

গত ১৬ জানুয়ারি হাইকোর্ট জানায়, ডিএনসিসি উপনির্বাচনে আর কোনো বাধা নেই। এরপর নির্বাচন কমিশন ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনের দিন ঠিক করে। প্রথমবার উপনির্বাচনের তারিখ  ঘোষণার পর আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দল নির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা করেছিল। কিন্তু ৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর পরিস্থিতি পাল্টে যায়। ২৮  ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিএনপি ও বাম গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মোট ভোটার সংখ্যা ২৩ লাখ ৪৫ হাজার ৩৭৪। তাদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১২ লাখ ২৪ হাজার ৭০১ জন। আর নারী ভোটার ১১ লাখ ২০ হাজার ৬৭৩ জন।