স্বাগত ২০১৯: বাংলাদেশ হোক দুর্নীতি-সন্ত্রাসমুক্ত ও সহনশীল | |

স্বাগত ২০১৯: বাংলাদেশ হোক দুর্নীতি-সন্ত্রাসমুক্ত ও সহনশীল

আজ নতুন বছরের প্রথম দিন।স্বাগত ২০১৯। ২০১৮ সালের শেষ দিনে ছিল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সেই আমেজ ধারণ করে নতুন বছরের প্রত্যাশার কথা বলতে গিয়ে রাজনীতি ও নির্বাচনকে ঘিরেই উত্তর দেন সমাজ বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, সরকারকে এবার দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও সাম্প্রদায়িকতামুক্ত সহনশীল বাংলাদেশ গড়ায় মনোযোগী হতে হবে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতার পাশাপাশি মানবাধিকার উন্নয়নের সূচক নিয়েও কাজ করার অঙ্গীকারের প্রতি গুরুত্ব দেন সংশ্লিষ্টরা।

.আরেকটি নতুন বছর মানে নতুন করে শুরুর সম্ভাবনা। সেই সম্ভাবনাকে অব্যাহত রাখার প্রত্যয় নিয়ে যেন এসেছে ২০১৯। নববর্ষ মানে নতুন স্বপ্ন বোনা। বিদায়ী বছরের শেষ দিনের রাত জিরো আওয়ারে সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশেও সব প্রান্তের মানুষ নানা আয়োজনে ও উৎসবের আমেজে বরণ করছে ইংরেজি নতুন বছর ২০১৯ সালকে। পুরনোকে বিদায় আর  নতুনকে স্বাগত জানাতে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের বিভিন্ন স্থানেই আয়োজন করা হয়েছে নানা অনুষ্ঠান।

.পুরনো যা কিছু, তাকে বিদায় জানিয়ে নতুনকে আবাহনের যে সামর্থ্য— বাংলাদেশ বারবারই তা দেখিয়েছে। গত বছর জঙ্গিবাদমুক্ত বাংলাদেশের আকাঙ্ক্ষা ছিল এবং সে অনুযায়ী কাজও হয়েছে। সেই পরম্পরাতেই সদ্য নির্বাচিত সরকারের সামনে যে কয়েকটি চ্যালেঞ্জ দেখতে পাচ্ছেন সমাজ বিশ্লেষকরা, তার মধ্যে এগিয়ে আছে— দুর্নীতি, সন্ত্রাস, সাম্প্রদায়িকতামুক্ত সহনশীল বাংলাদেশ গড়ে তোলার প্রক্রিয়া।