‘বিপিএলে ডিআরএস, স্নিকোমিটার থাকা উচিত’ | |

‘বিপিএলে ডিআরএস, স্নিকোমিটার থাকা উচিত’

প্রথমবারের মতো বিপিএলের ব্যবহার হচ্ছে ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম (ডিআরএস)। কিন্তু বিপিএলের ব্যবহার হচ্ছে ‘অদ্ভুতুড়ে’ ডিআরএস পদ্ধতি।

মাঠে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে দল সন্তুষ্ট হতে না পারলে ডিআরএসের সাহায্য চাওয়া হয়। তৃতীয় আম্পায়ার ডিআরএসের সুবিধা নিয়ে নিজের সিদ্ধান্ত জানান। ডিআরএস পদ্ধতির ভেতরে রয়েছে স্লো মোশনসহ হক আই, স্নিকোমিটার এবং হটস্পটের মতো উন্নত প্রযুক্তি। চারের সমন্বয়ে ডিআরএসের পরিপূর্ণতা। প্রতিটি পদ্ধতি তৃতীয় আম্পায়ারকে সিদ্ধান্ত নিতে আলাদা সুবিধা দেয়।

কিন্তু বিপিএলে যে ডিআরএস পদ্ধতি নিয়ে আসা হয়েছে তাতে নেই স্নিকোমিটার এবং হটস্পট। ফলে তৃতীয় আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়ে রয়েছে অনেক প্রশ্ন! বিপিএলের তৃতীয় ম্যাচে আজ স্টিভেন স্মিথের আউট নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। আগের দিন মোহাম্মদ হাফিজের উইকেটের সিদ্ধান্তও ছিল বিস্ময়কর।

অন্যান্য ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে সব সময়ই দেখা যায় উন্নত প্রযুক্তির ছোঁয়া, সেখানে বিপিএল পিছিয়ে। সকল সুবিধা ছাড়া ডিআরএস পদ্ধতির কোনো কার্যকারিতা দেখছেন না কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন।

‘এটা নিয়ে আমাদের কথা হয়েছিল (টুর্নামেন্টের আগে)। আসলে স্নিকো ও আল্ট্রাএজ আনতে অনেক টাকা লাগে। এটা হয়তো যারা করছে তারা সরবরাহ করেনি। । এই কারণে আমাদের কিছু বলার নেই। শুধু হক-আই থাকবে, অন্য কিছু থাকবে না, এটা আমারা আগেই জানতাম।’

‘এটা থাকাতে খুব একটা যে লাভ হচ্ছে তা কিন্তু না। শুধু এলবিডব্লিউয়ের ক্ষেত্রে হয়তো ঠিক সিদ্ধান্তটা আসছে, আর বাকিগুলোয় সন্দেহ থাকছেই।’

সালাউদ্দিনের দাবি, বিপিএলের গ্রহণযোগ্যতা এবং মান অনুযায়ী ডিআরএসের সকল সুবিধা থাকা উচিত। পাশাপাশি আর্থসামাজিক প্রেক্ষাপটও তুলে ধরেছেন সালাউদ্দিন।

‘আমার মনে হয় এখন সময় এসেছে আমাদের…এগুলো আমাদের অবশ্যই থাকা উচিত। আমরা তো মধ্যম আয়ের দেশ হয়ে গেছি, এখন তো আসলে এগুলো থাকাই উচিত।’