বিদায় বেলা আবেগাপ্লুত কণ্ঠে যা বললেন মায়া

নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমানকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, ‘ও আমার চেয়ে ভালো পারবে।’ সচিবলায়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া এ কথা বলেছেন।

মঙ্গলবার (৮ জানুয়ারী) সচিবালয়ে মায়ার বিদায় ও এনামুরের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আবেগাপ্লুত বিদায়ী মন্ত্রী এ কথা বলেন।

মায়া বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আজকে যাকে এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিয়েছেন তিনি অত্যন্ত একজন বিজ্ঞ, ও আমার প্রিয় ছোট ভাই এনামুর। আমি বিশ্বাস করি ও আমার চেয়ে ভালো পারবে। এর কারণ যার মন ভালো, পরিষ্কার, কাজ করার ইচ্ছা ও সাহস থাকে তার পক্ষে যে কোনো কিছু মোকাবেলা করা সম্ভব। আর যদি শাহ কামালের মতো সচিব পাশে থাকে।’

নতুন প্রতিমন্ত্রীর উদ্দেশে মায়া বলেন, ‘তুমি তো অনেক বিজ্ঞ মানুষ। রানা প্লাজা দিয়ে প্রমাণ করেছো বাংলাদেশে একটি মানুষ আছে, তার নাম ডা. এনাম। যোগ্য লোককে নেত্রী যোগ্য জায়গায় বসিয়েছে, এ জন্য আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে অত্যন্ত কৃতজ্ঞ। তুমি এই মন্ত্রণালয়ের মুখ আরও উজ্জ্বল করতে পারবে সেই বিশ্বাস আমার রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘চ্যালেঞ্জকে আলিঙ্গন করার মন্ত্রণালয় এই দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। আমরা এতদিনে একটি সুন্দর ও শৃঙ্খল মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিতে পেরেছি। এর কৃতিত্বের দাবিদার মন্ত্রণালয়ের সচিব থেকে পিওন পর্যন্ত।’

‘একটা স্লোগান ছিল আমাদের ও প্রধানমন্ত্রীর- একটা মানুষকেও না খেয়ে মরতে দেব না। নির্দ্বিধায় বলে দিতে পারি, গত পাঁচ বছরে এই মন্ত্রণালয়ের গাফিলতির কারণে একটা লোকও না খেয়ে মারা যায়নি। এই স্লোগানকে আমরা অর্থবহ করতে পেরেছিলাম।’

এনামুর রহমানের উদ্দেশে মায়া বলেন, ‘এই মন্ত্রণালয়ের যে কষ্টিপাথর কর্মকর্তারা রয়েছেন তারা যাতে অন্যায়ভাবে কোন কষ্ট না পায় সেই দিকে লক্ষ্য রাখার জন্য আমি বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।’

নতুন প্রতিমন্ত্রীকে সহযোগিতা করার জন্য কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বানও জানান মায়া।

এ সময় এনামুর রহমান মায়াকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘তাকে মায়া ভাই বলে ডাকি। মায়া ভাই নামে উনি সারা বাংলাদেশে পরিচিত। কণ্ঠটা ভার হয়ে আসছে, নামেও মায়া, বুকভরাও তার মায়া। গত পাঁচ বছর সংসদে যখন যে কাজে গিয়েছি উনি আমাকে গ্রহণ করেছেন ও সহযোগিতা করেছেন।’

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘এই মন্ত্রণালয়কে উনি সাজিয়ে দিয়ে গেছেন, আমার কোনো বেগ পেতে হবে না, কষ্ট করতে হবে না। উনি কত আদর করে বলে গেলেন আপনারা সবাই উনাকে সহযোগিতা করবেন। এই যে নাম ধরে সহযোগিতা চেয়ে উনি বক্তব্য রাখলেন, আমার বুকটা ভরে গেছে, সত্যিকারের আমার একজন বড়ভাই আছে। মন্ত্রণালয় চালাতে গেলে যে কোনো অসুবিধায় আমি উনার কাছে সহযোগিতা পাব।’

মায়ার উদ্দেশে এনামুর বলেন, ‘মায়া ভাইকে বলেছি আমি অবশ্যই আপনাকে বিরক্ত করব, সময়-অসময় ফোন করব। আপনার কাছে পরামর্শের জন্য যাব। আপনি তো ঘোষণাই করেছেন সহযোগিতা করবেন। আমি মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করি আল্লাহ আপনাকে সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু দান করুন। আপনার অভিজ্ঞতা দিয়ে বাংলাদেশকে আরও এগিয়ে নিয়ে যান।’