ইলিশ ধুন্দুল | |

ইলিশ ধুন্দুল

নুতন যারা রান্না করতে চাইছেন, এই রান্না তাদের সামনে ভাল দেখাবে এবং আপনারা এক্সপেরিমেন্ট হিসাবে নিজের হাত গরম করতে পারেন। যাই হোক আমি একটু ঝোল রেখেছিলাম, গরম ভাতের সাথে খেতে এবং এর সাথে অন্য কোন তরকারী আজ ছিল না! বেশ আনন্দ পেয়েছি। বিলিভ মি!

পরিমান ও পরিমাপঃ
– ইলিশ মাছ, কয়েক টুকরা, আমরা বড় ৪ টুকরা নিয়েছিলাম
– ধুন্দুল, হাফ কেজি কম বেশি, কচি হতে হবে, কচিতে হালকা একটা মিষ্টি স্বাদ আছে
– পেঁয়াজ কুঁচি, মাঝারি তিন্টে
– রসুন বাটা, দুই টেবিল চামচ
– গুড়া মরিচ, হাফ চা চামচ (ঝাল বুঝে)
– হলুদ গুড়া, হাফ চা চামচ
– লবন, পরিমান মত
– কাঁচা মরিচ, কয়েকটা
– তেল, ৫/৭ টেবিল চামচ (কম তেলে রান্না)
– পানি, ঝোল কেমন রাখবেন সেটার উপর নির্ভর করছে
– ধনিয়া পাতার কুঁচি, ইচ্ছা

মাছ কেটে সামান্য লবন ও হলুদ গুড়া দিয়ে মাখিয়ে সামান্য সময় রাখুন।

ধুন্দুল কেটে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন, যদিও ধুন্দুলে একটু বেশি পানি ধরে রাখে। ব্যাপার না!

কড়াই গরম করে তেলে দিন।

পেঁয়াজ কুঁচি ভাঁজুন, সামান্য লবন যোগে।

পেঁয়াজ হলদে হয়ে এলে রসুন বাটা দিন, কয়েকটা কাঁচা মরিচ চিরে দিন। ভাজুন।

ভাঁজা উত্তম হলে, হাফ কাপ পানি দিন। এবার মরিচ গুড়া ও হলুদের গুড়া দিন।

কষান, চুলার ধার ছেড়ে যাবেন না।

এবার মাছ গুলো দিন, আগুন মাঝারি আঁচে রাখুন।

কিছু সময়ের জন্য ঢাকনা দিতে পারেন।

এই রকম একটা অবস্থা এসে যাবে।

এবার ধুন্দুল দিয়ে দিন।

মিশিয়ে বা নাড়িয়ে দিন, সামান্য আর একটু পানি দিতে পারেন, যদিও ধুন্দুল থেকে পানি বের হবে। এবার মাধ্যম আঁচে ঢাকনা দিয়ে রেখে দিন মিনিট ১০ বা বেশি সময়।

হয়ে গেল। কেমন ঝোল রাখবেন, আপনার ইচ্ছা! ফাইন্যাল লবন স্বাদ দেখুন। লবন লাগলে দিন। ঝোল কমাতে চাইলে আগুন বাড়িয়ে দিন।

ধনিয়া পাতার কুঁচি ছিটিয়ে দিন।

পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত।