লামায় ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম

ভূমি বিরোধের বিষয়ে সরেজমিনে তদন্ত করতে গিয়ে বিবাদী পক্ষের দায়ের কুপে গুরুতর আহত হয়েছে লামার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ওয়ার্ড মেম্বার মো. নাছির উদ্দিন (৩৮)। সে ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও লাইল্যারমার পাড়ার মৃত গুরা মিয়ার ছেলে। মঙ্গলবার (২ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১ টায় লাইল্যারমার পাড়া এলাকার রইঙ্গা ঝিরিতে এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনার প্রত্যেক্ষদর্শী এজাহার মিয়া বলেন, চকরিয়ার ডুলহাজারা এলাকার মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন রইঙ্গা ঝিরিস্থ তার জমির বিরোধের বিষয়ে ফাঁসিয়া খালী ইউনিয়ন পরিষদে অভিযোগ করেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোট দিতে ওয়ার্ড মেম্বার মো. নাছির উদ্দিনকে পরিষদ হতে দায়িত্ব দেয়া হয়। মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় সার্ভেয়ার আব্দুল মালেক ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে বিষয়টি তদন্তে গেলে বিবাদী পক্ষের আবু শামার ছেলে মনুর আলম সঙ্গীয় মো. ইউনুচ (৪৯), ফরিদুল ইসলাম (৪২) সহ ৫/৬ জন নিয়ে নাছির মেম্বারের উপর হামলা চালায়। এ সময় তাদের দায়ের কুপে সে গুরুতর আহত হয়। ইউপি মেম্বার নাছিরের পরিবারের পক্ষ থেকে দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক বিচারের দাবি করেছেন।

এই বিষয়ে বিবাদী মনুর আলমের পক্ষ থেকে দাবি করার হয় বিরোধীয় জায়গাটিতে তারা দীর্ঘদিন যাবৎ বসতবাড়ি করে ভোগ দখলে আছেন। একটি পক্ষ তাদের প্রতিপক্ষ হতে ব্যক্তিগত সুবিধা নিযে ঘটনাটি ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করতে চাইছে।

ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান জাকের হোসেন মজুমদার বলেন, নাছির উদ্দিনের প্রচুর রক্ত ক্ষরণ হয়েছে। চিকিৎসার জন্য তাকে চকরিয়া হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। প্রয়োজনে চট্টগ্রাম নিয়ে যেতে বলেছি। হামলাকারীরা ডাকাত প্রকৃতির লোক।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, খবর পাওয়া মাত্র ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। হামলাকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।