তারেকের যাবজ্জীবন, হঠাৎ ঢাকায় শর্মিলা | |

তারেকের যাবজ্জীবন, হঠাৎ ঢাকায় শর্মিলা

বুধবার (১১ অক্টোবর) হঠাৎ দেশে এসেছেন আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি। হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়া শাশুড়ি বেগম খালেদা জিয়াকে দেখভালের জন্যই এসেছেন শর্মিলা। এমনটি প্রকাশ করেছে বেশকিছু গণমাধ্যম।

তবে বিএনপি ঘনিষ্ঠ এক সূত্র বলছে অন্য কথা। বেগম জিয়ার চিকিৎসাই শুধু নয় বরং তারেক জিয়ার বার্তা দলটির নেতাদের কাছে বুঝিয়ে দিতেই এই সময়ে দেশে এসেছেন শর্মিলা।

গতকাল বুধবার ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায় ঘোষণা করেন আদালত। রায়ে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড হয়েছে। তবে বিএনপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়াসহ ১৯ জনের হয়েছে যাবজ্জীবন। এছাড়া ১১ জনের সাজা হয়েছে বিভিন্ন মেয়াদে। যাবজ্জীবন প্রাপ্ত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দীর্ঘ দিন ধরেই লন্ডনে অবস্থান করছেন। এমন সময় সেই লন্ডন থেকে জিয়া পরিবারের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য শর্মিলার দেশে আসাকে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করেন বিশ্লেষকরা।

শর্মিলা গণমাধ্যমে বেগম জিয়ার চিকিৎসার দেখভাল করতে আসার কথা বললেন নির্ভরযোগ্য সূত্র বলছে, তিনি মূলত তারেক জিয়ার বার্তা বিএনপির সিনিয়র নেতাদের বুঝিয়ে দিতে এসেছেন। একই সঙ্গে তারেক জিয়ার বার্তা যথাযথ ভাবে পালন হচ্ছে কিনা তাও দেখবেন শর্মিলা। শর্মিলার কাছে তারেক জিয়ার বার্তা ছিল রায়ের পর বিএনপি যেন কোনো তীব্র প্রতিক্রিয়া না দেখায়। ওই বার্তা মোতাবেকই গতকাল কোনো তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখানো থেকে বিরত ছিল বিএনপি। তারেক জিয়ার বার্তা অনুযায়ীই আগামী কয়েকদিন বিএনপির কর্মকাণ্ড চলবে বলে নিশ্চিত করবে ঘনিষ্ঠ একাধিক সূত্র। আর তারেক জিয়ার বার্তা কি ছিল তার বিস্তারিত জানা যাবে বিএনপির কর্মকাণ্ডের মধ্যেই।

সূত্র: বাংলা ইনসাইডার