ঢাবি ‘ঘ’ ইউনিটে উত্তীর্ণদের আবার পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত | |

ঢাবি ‘ঘ’ ইউনিটে উত্তীর্ণদের আবার পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগের মধ্যে নতুন করে পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে সব পরীক্ষার্থী নয়, নতুন করে পরীক্ষা দেবেন ১২ তারিখের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ  ১৮ হাজার ৪৬৩ জন।

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটির বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়। ঢাকাটাইমসকে নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আখতারুজ্জামান। বলেন, ‘আমরা পরীক্ষাটা আবার নেব। তবে যারা পাস করেছে শুধু তাদের।’

পরীক্ষা নেয়ার পর পরই প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ উঠে। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এটা নিয়ে প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মুহাম্মাদ সামাদকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। কমিটি একজন ভর্তিচ্ছুর মোবাইলে সকাল ৯টা ১৭ মিনিটে প্রশ্ন পাওয়ার প্রমাণ পায়। এই প্রমাণ পাওয়া সত্ত্বেও কর্তৃপক্ষ ১৬ অক্টোবর ‘ঘ’  ইউনিটের ফল প্রকাশ করে।

এই পরীক্ষায় পাসের হার গত কয়েক বছরের তুলনায় ছিল বেশি। শতকরা ২৬ শতাংশ পাস সাম্প্রতিক ইতিহাসে নেই। এরপরও বিশ্ববিদ্যারয় কর্তৃপক্ষ পরীক্ষা বাতিলের বিষয়ে এতদিন সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি।

পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ শুরু করে, আইন অনুষদের তৃতীয় বর্ষের একজন ছাত্র অনশনও শুরু করেন। আর সেই অনশনে গিয়ে সংহতি জানায় সরকারপন্থী ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগও। তারাও পরীক্ষা বাতিলের দাবি জানায়।

এর মধ্যে ২২ অক্টোবর অধিকতর তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আর পরের দিনই নতুন করে পরীক্ষা গ্রহণের এই সিদ্ধান্ত নিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

উপাচার্য বলেন, কবে এবং কোন পদ্ধতিতে এই পরীক্ষা নেয়া হবে সেটা ঘ ইউনিটের সমন্বয়কারী ও অন্যান্য অনুষদের ডিনবৃন্দ আলোচনার মাধ্যমে নির্ধারণ করবেন।

প্রশ্ন ফাঁস যেন আর না হয় সে জন্য কী সিদ্ধান্ত হয়েছে- এমন প্রশ্নে আখতারুজ্জামান বলেন, ‘এ মুহূর্তে এ বিষয়ে আর বেশি বক্তব্য দেয়ার সুযোগ নেই। এই মুহূর্তে যেটি গুরুত্বপূর্ণ সেটি হলো ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা পুনরায় নেয়া হবে।’ (আরও আসছে)