৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে বখাটের ছুরিকাঘাত | |

৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে বখাটের ছুরিকাঘাত

প্রেম নিবেদনে ব্যর্থ হয়ে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত করেছে উজ্জল মিয়া (২০) নামে এক বখাটে যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার নাকাই ইউনিয়নের পগাইল গ্রামে গত রবিবার দিবাগত গভীর রাতে।
বখাটে যুবক উজ্জল মিয়া ওই গ্রামের মাইদুল ইসলামের ছেলে। আহত স্বর্ণা খাতুন একই গ্রামের সাজু সরকারের মেয়ে ও পগাইল দ্বিমুখী দাখিল মাদ্রাসার ছাত্রী।
আহত কিশোরীকে ঘটনার পর গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তার ডান হাতের রক্তক্ষরণ বন্ধে ৪টি সেলাই দিতে হয়েছে।
গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ শফিকুজ্জামান জানান, মাদ্রাসায় যাওয়া আসার পথে বখাটে উজ্জল প্রায়ই ওই কিশোরীকে উত্যক্ত করতো ও বিয়ের প্রস্তাব দিতো। কিন্তু এই আহবানে সে সাড়া দেয়নি। এতে বখাটে যুবক ক্ষেপে গিয়ে তার মোবাইল ফোনে অশালীন ইঙ্গিত করে ম্যাসেজ দেওয়া শুরু করে। বিষয়টি সে সম্প্রতি তার মাকে জানায়। তখন তার মা প্রতিবেশী বখাটে উজ্জলের মা-বাবাকে বিষয়টি জানিয়ে এসব বন্ধে ছেলেকে শাসন করার জন্য অনুরোধ করেন। এ ঘটনায় বখাটে উজ্জল আরও ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। গত রবিবার রাত সোয়া ১২টার দিকে সে একটি ধারালো ছুরি হাতে নিয়ে ওই কিশোরীকে আঘাত করার উদ্দেশ্যে তাদের বাড়িতে যায়।
তিনি আরো জানান, অত্যধিক গরমের কারণে ওই কিশোরী অন্যান্য দিনের মতো তার শোবার ঘরের জানালার ওপরের পার্ট খোলা রেখে ঘুমিয়ে পড়ে। বখাটে উজ্জল জানালার উপরের খোলা অংশ দিয়ে ভেতরে হাত ঢুকিয়ে নীচের পাটর্টা খুলে স্বর্ণাকে ছুরিকাঘাত করে দ্রুত পালিয়ে যায়। সৌভাগ্যক্রমে ছুরিটি গলা বা মুখে না লেগে স্বর্ণার ডান হাতে লেগে গুরুতর জখম হয়।
এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। বখাটে উজ্জলকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ তৎপরতা  অব্যাহত আছে।