হিজড়াদের উৎপাত বন্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: সংসদে তোফায়েল | |

হিজড়াদের উৎপাত বন্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: সংসদে তোফায়েল

রাস্তাঘাটে হিজড়াদের উৎপাত বন্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

তিনি বলেন, হিজড়ারা যাতে রাস্তাঘাটে জোর করে অর্থ আদায় বা কারও বাসাবাড়িতে গিয়ে উৎপাত না করতে পারে তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশনা দেয়া হবে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন অসুস্থতার কারণে সংসদে অনুপস্থিতিতে তার পক্ষে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ সংসদ সদস্যদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য কাজী রোজী রাজধানীর রাস্তাঘাট ও বাসাবাড়িতে হিজড়াদের উৎপাতের কথা উল্লেখ করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান।

তিনি বলেন, শুধু রাস্তাঘাটে নয়, বাসাবাড়িতে গিয়েও হিজড়ারা উৎপাত করে। এমনকি কোনো বাড়িতে শিশুর জন্ম হলে তাদের টাকা দিতে হয়। এ বিষয়ে সমাজকল্যাণমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তোফায়েল আহমেদ ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান।

এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তোফায়েল আহমেদ বলেন, হিজড়াদের পুনর্বাসনের জন্য সরকার ব্যবস্থা নিয়েছে। তবে অনেকে পুনর্বাসন সেন্টারে এসে কিছুদিন পর আবার চলে যায়। এ জন্য তাদের কাউন্সিলিং করা দরকার।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদিন খানের প্রশ্নের জবাবে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বিধবা ও স্বামী নিগৃহিতা নারীদের ৫০০ টাকা হারে ৭৫৯ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে। চলতি অর্থবছরে এই কর্মসূচিতে উপকারভোগীর সংখ্যা ১০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

এমপি সাধন চন্দ্র মজুমদারের লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন সমাজসেবা অধিদফতরের আওতায় সারা দেশে বৃদ্ধাশ্রমের (শান্তি নিবাস) সংখ্যা ৬টি। প্রতিটি বৃদ্ধাশ্রমে ৫০ জন করে মোট ৩০০ জন প্রবীণ ব্যক্তির থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। এগুলোর অবস্থান যথাক্রমে- ঢাকা (ফরিদপুর), খুলনা (বাগেরহাট), চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল এবং রাজশাহী জেলায়।

মেনন জানান, সমাজসেবা অধিদফতরের আওতায় সারা দেশে ৮৫টি শিশু পরিবার রয়েছে, যার প্রতিটিতে ১০ জন করে প্রবীণ ব্যক্তির থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। এর মধ্যে নওগাঁ সরকারি শিশু পরিবারটি বালিকাদের জন্য।

এমপি বজলুল হক হারুনের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, সমাজসেবা অধিদফতরের অধীনে পরিচালিত ৮৫টি শিশু পরিবারে ১০ হাজার ৩০০ জন এতিম ও অনাথ শিশু অধিকার সুরক্ষা ও আদর যত্নে লালনপালনসহ তাদের সাধারণ শিক্ষা, স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা, প্রশিক্ষণ, চিত্তবিনোদন এবং পুনর্বাসনের ব্যবস্থা রয়েছে।